মুম্বাইয়ে বাংলাদেশি যুবককে হত্যার অভিযোগ

যশোর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২২ জুন ২০১৮, ২০:১০

ভারতের মুম্বাইয়ে জসিম মোল্লা নামে এক বাংলাদেশিকে যুবককে হত্যার অভিযোগ করেছে তার স্বজনরা। নিহত জসিম যশোরের অভয়নগর উপজেলার হরিশপুর গ্রামের মৃত ইসহাক মোল্লার ছেলে।

১৫ জুন তিনি মারা যান বলে সেখানে বসবাসরত তার শ্বশুর টেলিফোনে জানান। ২০ জুন মরদেহ বাড়িতে পৌঁছুলে মরদেহ দেখে পরিবারের লোকজনের সন্দেহ হওয়ায় তারা বিষয়টি পুলিশে জানায়। ২২ জুন পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

নিহতের ছোট ভাই তোফাজ্জেল হোসেন জানান, প্রায় দুই বছর আগে তিনি স্ত্রীসহ ভারতের মুম্বাইয়ে কাজের উদ্দেশে পাড়ি জমান। সেখানে আগে থেকেই উপজেলার কামকুলি এলাকার তার শ্বশুর আবু সাঈদ পারিবার নিয়ে থাকতেন। গত শুক্রবার মোবাইলে তিনি জানান, তার ভাই অসুস্থ হয়ে মারা গেছে। তিনি মরদেহ দাফনের জন্য তাদের অনুমতি চান। কিন্তু কথাবার্তায় তাদের সন্দেহ হওয়ায় মরদেহ দেশে পাঠানোর জন্য চাপ দিতে থাকি। একপর্যায়ে জসিমের শ্বশুর দেশে পাঠানোর জন্য রাজি হন এবং বুধবার বাংলাদেশ বিমানে করে মরদেহ ঢাকায় এবং পরে অ্যাম্বুলেন্সে তার গ্রামের বাড়িতে আনা হয়। 

তোফাজ্জেল আরো জানান, জসিমের শ্বশুর মরদেহের সাথে দেশে আসেন। তিনি বারবার ফোনে মরদেহে পচন ধরার কথা বলে কফিনে ঢোকানো অবস্থায় দাফনের জন্য তাগাদা দিতে থাকেন।

এদিকে তিনি মরদেহের সাথে গ্রামের বাড়ি পর্যন্ত না এসে রাস্তায় নেমে যান। এতে তাদের আরো বেশি সন্দেহ হয়। তারা কফিন খুলে দেখেন, মরদেহের মাথায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে এবং গলায় ধারালো অস্ত্রের দাগ। তারা বিষয়টি স্থানীয় পুলিশে জানালে মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। 

অভয়নগর থানার এসআই রেফাতুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। মরদেহ ময়নাতদন্ত সম্পন্নের জন্য ইতোমধ্যে যশোরের জেলা প্রশাসকের অনুমতি নেয়া হয়েছে। শনিবার ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হবে বলে তিনি আশা করছেন। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণের কথা জানান তিনি।

(ঢাকাটাইমস/২২জুন/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত