বিশ্বকাপের মাঝপথ, তারকাদের কে কেমন করলেন?

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৫ জুন ২০১৮, ১৬:৩২

বিশ্বকাপের ৩২ ম্যাচ হয়ে গেল। মানে মোট ৬৪ ম্যাচের অর্ধেকই শেষ। সেরা তারকারা কেউ সফল, কেউ দুর্দান্ত সফল, কেউ সাদামাটা, কেউ আবার ব্যর্থ। বিদায় নিয়েছে বেশ কিছু দল। কোনও কোনও দল আবার আজ থেকে শুরু হতে চলা গ্রুপের শেষ ম্যাচে উজাড় করে দেওয়ার অপেক্ষায়।

সুইডেনের বিরুদ্ধে শেষ মিনিটে ফ্রিকিকে অবিশ্বাস্য গোলে দলকে জিতিয়েছিলেন জার্মানির টোনি খোস। প্রথম ম্যাচে হারের পর জেতা দরকার ছিল গত বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। ১-১ থাকা পরিস্থিতেতে মারাত্মক চাপের মধ্যে খোসের গোল স্বস্তি আনে শিবিরে।

ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর মতো বেলজিয়ামের রোমেলু লুকাকুও করে ফেলেছেন চার গোল। নয় নম্বর জার্সিতে পুরোদস্তুর স্ট্রাইকারের ভূমিকায় দুরন্ত তিনি। খুব গরিব পরিবার থেকে উঠে এসেছেন। মাকে কথা দিয়েছিলেন, বড় হয়ে নামকরা ফুটবলার হবেন। হয়েওছেন।

তবে আপাতত বিশ্বকাপের সর্বাধিক গোলদাতা এঁরা কেউ নন। অনেকটা সিলেবাসের বাইরে থেকে উঠে আসার মতোই পাঁচ গোল করে সোনার বুট পাওয়ার পয়লা নম্বর দাবিদার হয়ে উঠেছেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক হ্যারি কেন। তিউনিসিয়ার বিরুদ্ধে দৃ’গোলের পর পানামার বিরুদ্ধে হ্যাটট্রিক। যা এ বারের বিশ্বকাপের দ্বিতীয়। নিন্দুকরা বলতে পারেন, হ্যাটট্রিকের প্রথম দুই গোল এসেছে পেনাল্টিতে। কিন্তু, স্পেনের বিরুদ্ধে রোনালদোর প্রথম গোলও এসেছিল পেনাল্টিতে!

সফলদের পাশাপাশি উঁকি মারছেন আরও কয়েক জন। যাদের কেউ আবার কখনও উজ্জ্বল, কখনও ফিকে। ব্রাজিলের নেইমার যেমন। কোস্টা রিকার বিরুদ্ধে শেষ মুহূর্তে গোল পেলেও সমালোচিত হয়েছেন নাটক করার জন্য। মার খাওয়ার ভান করে পেনাল্টি আদায়ের চেষ্টা চিহ্নিত হয়েছে অভিনয় হিসেবে। যা তাঁর ক্ষেত্রে মানায় না।

তবে প্রথম দুই ম্যাচে সেরা হতাশা অবশ্যই লিওনেল মেসি। পেনাল্টি নষ্ট করেছিলেন প্রথম ম্যাচে। দ্বিতীয় ম্যাচে হারতে হয়েছে তিন গোলে। সবচেয়ে যন্ত্রণার, মরিয়া তাগিদও দেখা যায়নি তাঁর মধ্যে।

 (ঢাকাটাইমস/২৫জুন/ডিএইচ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত