ময়মনসিংহে অসহায় পরিবারের পাশে এসপি

মনোনেশ দাস, ময়মনসিংহ
 | প্রকাশিত : ১১ জুলাই ২০১৮, ২২:৫৫

এক বৃদ্ধার পুত্রকে খুন করে অটোরিকশাটি চুরি করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। ঘটনা ময়মনসিংহ জেলার ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার উচাখিলা এলাকার।

নিহত ফারুক এলাকায় অটোরিকশা চালিয়ে তিনটি শিশুসহ বৃদ্ধা অসুস্থ মাকে নিয়ে কষ্ট করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলেন।

গত ১০ এপ্রিল প্রতিদিনের মতো জীবিকার তাগিদে ঋণের টাকায় কেনা অটোরিকশাটি নিয়ে বের হন ফারুক। কিন্তু অজ্ঞাতনামা কিছু দুর্বৃত্ত চালক ফারুককে হত্যা করে অটোরিকশটি নিয়ে যায়। বৃদ্ধ মা এবং স্ত্রী সালমা খাতুন তাদের পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারীকে হারিয়ে দিশাহারা হয়ে পড়েন এবং তিনটি শিশু সন্তানকে কীভাবে লেখাপড়া করাবেন এবং পেটে ভাত কীভাবে তুলে দেবে সে চিন্তায় বারবার মুর্ছা যাচ্ছিলেন তারা।

ঠিক এসময় এই পরিবারটির পাশে দাঁড়ালেন, ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম। বুধবার এই অসহায় পরিবারের হাতে একটি অটোরিকশার তুলে দেন তিনি।

এসময় এসপি বলেন, বিকল্প আয়ের ব্যবস্থা না থাকায় বৃদ্ধ মা ও শিশু তিন সন্তানের ভবিষ্যতের কথা বিবেচনা করে আমার এবং জেলা গোয়েন্দা সংস্থার ডিবি পুলিশের ওসি আশিকুর রহমান এবং অন্যান্য অফিসার ফোর্সদের সমন্বয়ে টাকা উত্তোলন করে একটি অটোরিকশা কেনা হয়।

পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম বলেন, আমি যতদিন ময়মনসিংহে থাকব- তাদের দেখভাল করার দায়িত্ব আমার। তারা যেন ভালোভাবে জীবন-যাপন করতে পারে। সে দিকে সব সময় দৃষ্টি থাকবে।

নিহত ফারুকের স্ত্রী সালমা খাতুন বলেন, পুলিশ অফিসার এরকম ভালো কাজ করতে পারে- তা বিশ্বাস ছিল না। আমার পরিবার এখন না খেয়ে মরবে না।

প্রসঙ্গত, ময়মনসিংহের জেলা পুলিশ সুপার হিসেবে সৈয়দ নুরুল ইসলাম যোগদানের পর থেকেই তৃণমূল মানুষের খোঁজ-খবর নিয়ে মানবিক এরকম অনেক কাজ করে চলেছেন।

(ঢাকাটাইমস/১১জুলাই/ব্যুরো প্রধান/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত