তিন লাখ সরকারি পদ খালি কেন: রওশন

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১২ জুলাই ২০১৮, ২১:০২ | প্রকাশিত : ১২ জুলাই ২০১৮, ২০:৩৮

বেকারত্ব নিয়ে যখন কথাবার্তা চলছে তখন প্রায় তিন লাখ সরকারি পদ শূন্য থাকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সংসদে প্রধান বিরোধীদলীয় নেতা বেগম রওশন এরশাদ। বলেছেন, ‘এসব পদে বিজ্ঞপ্তি দিয়ে নিয়োগ দেয়া হলে অনেক ছেলে-মেয়ে চাকরি পাবে। আমরা সেটা করি না কেন?’

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে চলতি বাজেট অধিবেশনের সমাপনী অধিবেশনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে এ প্রশ্ন রাখেন রওশন এরশাদ।

বলেন, ‘আমি গতকাল টেলিভিশনে দেখলাম আমাদের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে দুই লাখ ৯০ হাজার ৩৪৮ পদ শূন্য আছে। এগুলো যদি আমরা বিজ্ঞপ্তি দিয়ে নিয়োগ দেই তাহলে অনেক ছেলে-মেয়ে চাকরি পায়। আমরা সেটা করি না কেন?’

বিশ্ব ব্যাংকের উদ্ধৃতি ‍দিয়ে রওশন বলেন, ‘বিশ্বব্যাংক ২০১৬ সালে বলেছে আমাদের দেশে সাড়ে পাঁচ কোটি মানুষ বেকার রয়েছে। আমরা যদি তাদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা না করতে পারি তাহলে তো তারা অসামাজিক কাজে জড়িয়ে যাবেই।’

‘এখন কিছু কিছু লোকের হয়তো কাজের ব্যবস্থা হয়েছে। কিন্তু যতটুকু হওয়ার প্রয়োজন ততটুকু হয়নি। আমাদের সরকারি ও কোম্পানির চাকরি তো সীমিত। তাই আমাদের দ্রুত শিল্প-কারখানা গড়ে তুলতে হবে।’

বিরোধীদলীয় নেতা বলেন, ‘শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করছে। তারা তো আমাদের সন্তান। তারা তো আবদার করবেই। তারা তো চাকরি চাইবে। তাদের চাকরিতে যেমন করে হোক, প্রোভাইড করতে হবে। চাকরি দিতে হবে।’

জাতীয় পার্টির নেতা বলেন, ‘সরকার জনগণের চাহিদা কতটুকু পূরণ করতে পেরেছে, তা চিন্তাভাবনা করতে হবে। আমরা বেকার যুবকদের চাকরি দিতে পারছি না। সংসদে আসলাম,বসে সময় কাটালাম, তাহলে তো হবে না।’

কোটা সংস্কার আন্দোলনে থাকা শিক্ষার্থীদের দাবি সহানুভূতির সঙ্গে দেখার পাশাপাশি সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স সীমা ৩৫ বছর ও অবসরের বয়সসীমা ৬৫ বছরে উত্তীর্ণ করার বিষয়টিও বিবেচনার অনুরোধ করেন রওশন। বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী দেশকে ভালোবাসেন। জাতিকে ভালোবাসেন। তিনি এটা পারবেন। তিনি না করে পারবেন না।’

ঢাকাটাইমস/১৩জুলাই/এসএস/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত