হামলায় ছাত্রলীগ কি না, নিশ্চিত নন কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ জুলাই ২০১৮, ২১:০১

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের ওপর হামলায় ছাত্রলীগ জড়িত কি না, নিশ্চিত নন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। হামলায় ছাত্রলীগ নামধারী কেউ আছে কি না, সেটিও খোঁজ নিয়ে জানাবেন তিনি।

রবিবার সন্ধ্যায় ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নে এ কথা বলেন কাদের।

কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনের ‍মুখে গত ১১ এপ্রিল সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোনো কোটা থাকবে না বলে বক্তব্য দেয়ার পর মিছিল করেছিল ছাত্রলীগ।

তবে গত ২৭ জুলাই কোটা আন্দোলনের নেতা রাশেদ খাঁনের ভিডিও বার্তায় ‘মনে হয় তার বাপের দেশ’- এই জাতীয় বক্তব্যের পর কোটা আন্দোলনকারীদেরকে আর ‘বরদাশত’ করতে চাইছে না ছাত্রলীগ। এই কটূক্তি প্রধানমন্ত্রীকে করা হয়েছে অভিযোগ করে মামলা করেন এক ছাত্রলীগ নেতা, সেই সঙ্গে শুরু হয় হামলা।

গত ৩০ জুলাই থেকে আন্দোলনকারী সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের জমায়েতে তারা বাধা দিচ্ছে, ব্যাপকভাবে পিটুনিও দেয়া হয়েছে। এর প্রতিবাদে ২ জুলাই ঢাকা ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে জমায়েতেও হামলা হয়েছে। রাজশাহীতে কোটা আন্দোলনের এক নেতাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে তার পায়ের হাড়ও ভেঙে ফেলা হয়েছে।

এসব হামলার প্রতিবাদ ও বিচারের কর্মসূচিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বাধা দেয়া হচ্ছে। সবশেষ আজ রবিবারও ‘নিপীড়নবিরোধী শিক্ষার্থীদের’ ব্যানারে জড়ো হওয়া ছাত্রদেরকে ব্যাপকভাবে পেটানো হয়েছে। এমনকি হামলার প্রতিবাদে শিক্ষকদের জমায়েতেও বাধা দেয়া হয়েছে। এক শিক্ষকের সঙ্গে তর্কাতর্কির ছবিও প্রকাশ হয়েছে।

হামলাকারীদের যে ছবি প্রকাশ হয়েছে তাতে এটা স্পষ্ট যে সরকারপন্থী ছাত্র সংগঠনের চিহ্নিত নেতা-কর্মীরাই হামলার নেতৃত্বে ছিলেন। তবে কাদের দাবি করেন, এখানে ছাত্রলীগ নেই।

‘দেখুন, ছাত্রলীগের এখন কমিটি নাই। ছাত্রলীগের সম্মেলনের পর এখনও কমিটি ঘোষিত হয়নি। ছাত্রলীগের নামে কি কেউ কিছু করেছে এখানে এটা আমাকে জেনে বলতে হবে। আমি শিউর না। ছাত্রলীগ নামধারী আছে কি না সেটা আমাদের দেখতে হবে।’

কোটা আন্দোলনের বেশ কয়েকজন নেতাকে গ্রেপ্তারের বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘পুলিশ কমিশনার আমাকে যা বলেছে, সেখানে এরকম (কোটা আন্দোলন) সম্পৃক্ততা নেই। পুলিশ কমিশনার আমাকে বলেছেন তারা তাদেরকেই এরেস্ট করছেন, যারা ওইদিন ভিসির বাড়িতে আক্রমণ করেছেন।’

কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের পর এক ছাত্রের মৃত্যুর গুজব ছড়িয়ে গত ৮ এপ্রিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ভবনে হামলা হয়। হামলার কয়েকদিন পর বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়ে ওবায়দুল কাদের জানিয়েছিলেন, হামলাকারীরা এই ভবনের সিসি ক্যামেরা খুলে নিয়ে গেলে আশেপাশের বিভিন্ন ভবনের ভিডিও ফুটেজ দেখে তাদেরকে শনাক্ত করা হয়েছে।

রাশেদ খাঁনসহ কোটা আন্দোলনের নেতা গ্রেপ্তার নেতাদেরকে এই মামলাতেও গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

ঢাকাটাইমস/১৫জুলাই/টিএ/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত