মি. বেকারসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৬ জুলাই ২০১৮, ১৯:৫৯

কেকের গায়ে উৎপাদনের তারিখ লেখা না থাকায় ‘মি. বেকার’কে জরিমানা করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। প্রতিষ্ঠানটির ধানমন্ডি ১০-এর শাখাকে এই জরিমানা করা হয়। একই অভিযোগে ‘শামস হট’কেও জরিমানা গুনতে হয়েছে।

সোমবার দুপুরে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মন্ডল ও সহকারী পরিচালক জান্নাতুল ফেরদাউস ধানমন্ডি ও তাজমহল রোডে এই অভিযান পরিচালনা করেন। অভিযানে সহায়তা করে আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন-১ (এপিপিএন)।

অভিযান শেষে সহকারী পরিচালক আব্দুল জব্বার মন্ডল ঢাকাটাইমসকে জানান, ‘ধানমন্ডির মি. বেকার তাদের তৈরি করা কেকের গায়ে উৎপাদন ও মেয়াদত্তীর্ণের তারিখ ছিল না। আর এভাবেই তারা কেক বিক্রি করছিল। তাই প্রতিষ্ঠানটিকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। একই অভিযোগ ছিল শামস হটকে ১০ হাজার এবং দইয়ের গায়ে মেয়াদত্তীর্ণের তারিখ না থাকায় মোহাম্মদপুরের তাজমোহল রোডের বাকলাভাকে ২০হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।’

অভিযানে ধানমন্ডির ডি স্মোক ক্যাফেতে গিয়ে দেখা যায়, নির্ধারিত দামের চেয়ে বেশি দামে কোল্ড ড্রিংকস বিক্রি করছিল। এছাড়া তাদের কিচেনে অস্বাস্থ্যকর ও নোংরা পরিবেশে খাবার তৈরি হচ্ছিল। এসব অভিযোগে প্রতিষ্ঠানটিকে ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া লেক সার্কাস রোডের আজাদ হোটেলে অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে খাবার তৈরির অভিযোগে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ভাগ্যকুল জেনারেল ষ্টোরে বিদেশী চকলেট, জুস ও দুধের কৌটার গায়ে বাংলাদেশি টাকা লেখা না থাকায় ১৫হাজার এবং কলাবাগানের ফাতেমা ফ্রুট-এ ফলের মূল্য তালিকা লেখা না থাকায় ৫ হাজার টাকা জরিমানা গুনতে হয়েছে।

ঢাকাটাইমস/১৬জুলাই/এসএস/ডিএম

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজধানী বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত