সাফারি পার্কে কমন ইল্যান্ডের শিঙের গুতোয় জিরাফের মৃত্যু

শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৭ জুলাই ২০১৮, ০০:৪৩ | প্রকাশিত : ১৬ জুলাই ২০১৮, ২৩:৫৮
শিঙের গুতোয় জিরাফটির পেটের নিচে মারাত্মক জখম হয়।

গাজীপুরের শ্রীপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে কমন ইল্যান্ডের আক্রমণে গুরুতর আহত জিরাফটি মারা গেছে। গত বৃহস্পতিবার কমন ইল্যান্ড এর শিঙের গুতায় জিরাফটি গুরুতর আহত হয়েছিল। দুদিন অচেতন থাকার পর শনিবার জিরাফটির মৃত্যু হয়। তবে মত্যুর ঘটনাটি সোমবার প্রথম প্রকাশ পায়। মারা যাওয়া জিরাফটি মাদি ছিল। জিরাফটি এই পার্কে একটি শাবকেরও জন্ম দিয়েছিল। 

সাফারি পার্কের ভেটেরেনারি সার্জন নিজাম উদ্দিন জানান, পার্কের আফ্রিকান সাফারিতে জিরাফ, জেব্রা, অরিক্স, ব্লেজবার, গ্যাজেল ও কমনইল্যান্ড একত্রে থাকে। গত ১১ই জুলাই কোনো এক সময় কমনইল্যান্ড আক্রমণ করে এই জিরাফটিকে। এ সময় কমনইল্যান্ডের ধারালো শিঙের আঘাতে জিরাফটি পেটের নিচে ফেরে যায়। বিষয়টি কর্তৃপক্ষের নজরে এলে ১২ ই জুলাই জিরাফকে সার্জারির জন্য চেতনানাশক ওষুধ প্রয়োগ করা হয়। পরে ১৩ ই জুলাই চেতনানাশক দিয়ে এর সার্জারি করা হয়। তবে অধিক রক্তক্ষরণের কারণে শেষ পর্যন্ত জিরাফটিকে বাঁচানো যায়নি। ওই দিনই জিরাফটি মারা যায়। 

                                             কমন ইল্যান্ড (Common eland), পশ্চিম ও দক্ষিণ আফ্রিকা অঞ্চলে এদের বাস।

ময়মনসিংহ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও চিকিৎসা বোর্ডের সদস্য প্রফেসর ডা. মো. রফিকুল আলম জানান,অনেক বড় প্রাণিকে অচেতন করা বেশ কঠিন কাজ। জিরাফটিকে বনের ভেতরে রেখে চেতনানাশক ওষুধ দিয়ে অচেতন করতেই অনেক সময় লেগে গেছে, এর মধ্যে অধিক রক্তক্ষরন হয়েছে। অচেতন করে সাজার্রি করার পর আর জ্ঞান ফিরেনি জিরাফের। তিনি বলেন এখনই জরুরি ভিত্তিতে কমনইল্যান্ড গুলো আলাদা বেষ্টনীতে স্থানান্তর করা প্রয়োজন। নইলে এর আক্রমণে আরো অনেক প্রাণিই প্রাণ হারাবে।

ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মোতালেব হোসেন ঢাকাটাইমসকে জানান, অনেক চেষ্টা করেও জিরাফটিকে বাঁচানো যায়নি। দুই দিন চেষ্টার পর জিরাফটি মারা গেছে। আফ্রিকান সাফারি থেকে কমনইল্যান্ড গুলো সরানোর ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে শিগগিরই। 

ঢাকাটাইমস/১৬জুলাই/প্রতিনিধি/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত