কমিটি থেকে বয়স্ক ও নারীদের ছেঁটে সমালোচনায় রাহুল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৮ জুলাই ২০১৮, ০৯:১১

প্রতিবেশী রাষ্ট্র ভারতের কেন্দ্রীয় প্রধান বিরোধী দল কংগ্রেসের নতুন ওয়ার্কিং কমিটি গঠন করেছেন দলটির সভাপতি রাহুল গান্ধী। কংগ্রেসের নতুন এই ওয়ার্কিং কমিটি থেকে বেশ কয়েকজন বয়স্ক নেতাকে ছেঁটে ফেলেছেন রাহুল। এছাড়া নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে সোচ্চার থাকা রাহুল দলের ওয়ার্কিং কমিটিতে তার মা সোনিয়া গান্ধি ছাড়া রেখেছেন মাত্র দুই নারীকে।

মঙ্গলবার দলের ৫১ জনের ওয়ার্কিং কমিটি ঘোষণা করেন রাহুল। সেখানে তার প্রতিশ্রুতিমাফিক কাজ না করা প্রবীণদের বাদ দিয়েছেন। এখনও সক্রিয়, এমন প্রবীণদের রেখে জায়গা দিয়েছেন নবীনদেরও।

দিগ্বিজয় সিংহ, কমল নাথ, দলিত মুখ সুশীলকুমার শিন্দে, মোহন প্রকাশ, সি পি জোশী, জনার্দন দ্বিবেদীর, বি কে হরিপ্রসাদ, মধুসূদন মিস্ত্রি, শশী তারুর, জয়রাম রমেশ, অস্কার ফার্নান্ডেজ, কর্ণ সিংহ, সলমন খুরশিদের মতো নেতাদের বাদ দিয়েছেন রাহুল।

আর মনমোহন সিংহ, মোতিলাল ভোরা, গুলাম নবি আজাদ, এ কে অ্যান্টনি, আহমেদ পটেল, অম্বিকা সোনি, উমেন চান্ডি, কর্নাটকের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া, কে সি বেণুগোপাল, পশ্চিমবঙ্গের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা তরুণ গগৈ, শৈলজাও এর মতো প্রবীণদের দলের ওয়ার্কিং কমিটিতে রেখেছেন রাহুল। এছাড়া জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, দীপেন্দ্র হুডা, জিতিন প্রসাদ, সুস্মিতা দেবের মতো নতুন মুখকে স্থান দিয়েছেন। স্থায়ী আমন্ত্রিত হিসেবে শীলা দীক্ষিত, পি চিদম্বরমও রয়েছেন।

এই প্রথম বিভিন্ন রাজ্যের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদেরও ওয়ার্কিং কমিটিতে রেখেছেন রাহুল। বিশেষ আমন্ত্রিত হিসেবে বিভিন্ন মোর্চার প্রধানও আছেন।

তবে রাহুলের ওয়ার্কং কমিটি নিয়ে বেশ কটাক্ষ করেছে ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপি। তাদের বক্তব্য, রাহুল কাদের নিয়ে টিম তৈরি করবেন, সেটা তার বিষয়। কিন্তু গতকালই তিনি প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখেছেন মহিলা সংরক্ষণ বিল পাসের দাবিতে। আর আজই তার কমিটিতে মাত্র তিনজন মহিলা। একজন সোনিয়া। সুস্মিতা রয়েছেন বিশেষ আমন্ত্রিত হিসেবে, তা-ও মহিলা কংগ্রেসের সভানেত্রী হিসেবে।

এক কংগ্রেস নেতা বলেন, 'সভাপতি পদের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই রাহুল বিভিন্ন পদে তাদেরই দায়িত্ব দিচ্ছেন, যারা কাজ করে দেখাতে পারবেন।'

অপরদিকে রাহুলের এক টুইট নিয়ে আলোচনা সমালোচনা চলছে। সেখানে রাহুল ভারতের দরিদ্রদের পাশে দাঁড়ানোর প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন। সে যে মতেরই হোক না কেন। আর টুইটের শেষে লিখেছেন 'আমিই কংগ্রেস'।

এটি নিয়েই রাহুলের সমালোচনায় নেমেছে ক্ষমতাসীন বিজেপি। রাহুলের টুইটটি হলো- 'আমি লাইনের একেবারে শেষ লোকটির পাশে রয়েছি। আমি শোষিত নির্যাতিত প্রান্তিকদের পক্ষে| ওদের ধর্ম, জাতপাত বা বিশ্বাস কী, আমার কাছে তার গুরুত্ব নেই। যারা কষ্টে রয়েছেন, তাদের খুঁজে বুকে টেনে নিই আমি। ঘৃণা, বিদ্বেষ, আতঙ্ক মুছে দিই। সব জীবিত প্রাণকে ভালোবাসি। আমি কংগ্রেস।'

তবে বিজেপি এই টুইটের সমালোচনা করলেও কংগ্রেস এমন টুইটের প্রশংসা করেছে।

(ঢাকাটাইমস/১৮জুলাই/একে/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত