আ.লীগের জোটে আসতে চায় নাজমুল হুদার তৃণমূল বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৮ জুলাই ২০১৮, ১৯:৫৫
আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে যাচ্ছেন নাজমুল হুদা

আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন জোটে যোগ দিতে চায় সাবেক বিএনপি নেতা নাজমুল হুদার নেতৃত্বাধীন ‘তৃণমূল বিএনপি’। সঙ্গে রয়েছে আরও নয়টি রাজনৈতিক দলও।

বুধবার আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে ৯ দলের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম।

বৈঠক শেষে নাসিম বলেন, ‘বিএনপি কে চুড়ান্ত পর্যায়ে পরাজিত করার লক্ষ্যে তৃণমূল বিএনপিসহ নয়টি দল আমাদের সাথে কাজ করতে চায়। এজন্য নয়টি দলের নীতিনির্ধারকদেরকে আমন্ত্রণ জানান হয়েছে। তবে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি, সিদ্ধান্ত নেবেন শেখ হাসিনা।’

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপি জাতীয় ঐক্য গঠনের চেষ্টায় আলোচনা চালাচ্ছে বিভিন্ন দলের সঙ্গে।

এর মধ্যে আওয়ামী লীগও আগ্রহী জোটে নতুন দলের অন্তর্ভুক্তিতে। তবে এ ক্ষেত্রে ১৪ দলের শরিক দলের নেতাদের আপত্তি আছে। তারা নতুন দলের সঙ্গে নির্বাচনী সমঝোতায় যাওয়ার পক্ষে হলেও জোট বাড়ানে রাজি নন। আওয়ামী লীগকে মঙ্গলবারের বৈঠকে বিষয়টি জানিয়েও দেয়া হয়।

নাজমুল হুদার নেতৃত্বাদীন তৃণমূল বিএনপি ছাড়াও ক্ষমতাসীন জোটে যুক্ত হতে আগ্রহী গণতান্ত্রিক আন্দোলন, ন্যাশনাল ডেমোক্রেটিক এলায়েন্স, সম্মিলিত ইসলামিক জোট, কৃষক শ্রমিক পার্টি, একামত আন্দোলন, জাগো দল, ইসলামিক ফ্রন্ট ও গণতান্ত্রিক জোট।

নাজমুল হুদা বিএনপির প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য। ছিলেন দলটির মন্ত্রী, স্থায়ী কমিটির সদস্য। ১৯৯১ থেকে ৯৬ এবং ২০০১ সাল থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত বিএনপির মন্ত্রী থাকাকালে আওয়ামী লীগকে নিয়ে নানা তীর্যক ও আপত্তিকর মন্তব্যের কারণে সমালোচিতও হয়েছেন তিনি।

ঢাকার দোহার আসন থেকে একাধিকবার নির্বাচিত এই রাজনীতিক বিএনপিতেও তার অবস্থান হারিয়েছেন একাধিকবার বিতর্কিত মন্তব্য করে। দল থেকে বহিষ্কারও হয়েছেন বেশ কয়েকবার।

বিএনপি থেকে বহিষ্কার হওয়ার পর নতুন দল গঠন করে নিজ দল থেকেও বহিষ্কার হওয়ার পর এবার তৃণমূল বিএনপি নামে আগাতে চাইছেন তিনি। গত কয়েক বছর ধরেই ১৪ দলের বিভিন্ন কর্মসূচিতে তিনি অংশ নিয়ে আসছেন।

বৈঠকের পর আওয়ামী লীগ নেতা নাসিম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর এ ব্যাপারে নির্দেশনা আছে যে, অশুভ শক্তি আছে বাংলাদেশে এবং বঙ্গবন্ধুর খুনিদের আশ্রয় দিয়েছিল, বাংলাদেশে তারা আজও চক্রান্তের সাথে জড়িত আছে। সামনে ডিসেম্বরের নির্বাচন। নির্বাচন কমিশনের নির্ধারিত সময়েই হবে।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, বাংলাদেশ জাসদ সভাপতি শরীফ নুরুল আম্বিয়া, জাসদ সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার প্রমুখ।

ঢাকাটাইমস/১৮জুলাই/টিএ/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত