কোটা আন্দোলন

অতি উৎসাহে বাড়াবাড়ি নয়, ফেসবুক লাইভে ‘নিখোঁজ’ তারেক

সিরাজুম সালেকীন, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৮ জুলাই ২০১৮, ২২:০০ | প্রকাশিত : ১৮ জুলাই ২০১৮, ২০:৫৭

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কার আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক তারেক রহমানের সন্ধান মিলেছে। তিনি নিখোঁজ বলে বিভ্রান্ত না করার অনুরোধ করেছেন। জানিয়েছেন, আছেন বাবার সঙ্গে।

তারেক অজ্ঞাত স্থান থেকে এসে ফেসবুকে ভিডিও লাইভ দিয়ে সতর্ক করেছেন, তাদের আন্দোলনকে রাজনৈতিক ইস্যু করার চেষ্টা করা হচ্ছে। অথচ এটা রাজনৈতিক আন্দোলন ছিল না।

অতি উৎসাহে কোটা আন্দোলনে বাড়াবাড়ি হচ্ছে বলেও মনে করেন তারেক। বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোটা সংস্কারের বিষয়ে যে কমিটি করেছেন, তাতেও আস্থা আছে তার। আহ্বান জানিয়েছেন, সরকার প্রধানের প্রতি আস্থা রাখার।

তবে তারেক এখন কোথায় আছেন, সেটি বলেননি লাইভে। এই কয়দিন কোথায় আছেন, সেটিও বলেননি। জানান, তার নিখোঁজ, গ্রেপ্তার ও রিমান্ডের কারণে তার মানসিক অবস্থা হ-য-ব-র-ল।

শনিবার তারেক নিখোঁজ হন বলে খবর ছড়ায়। সোমবার দুপুরে তাকে ফিরিয়ে দিতে রাজধানীতে সংবাদ সম্মেলন করেন বাবা আব্দুল লতিফ এবং মা শাহানা বেগম।

সেদিন তারেকের বাবা মা জানান, ১৪ জুলাই তারেকের সঙ্গে শেষ কথা হয় তার বোনের। সে ফোনে বলছিল- তাকে কেউ অনুসরণ করছে। এই কথার পর থেকে তার মোবাইল বন্ধ। এরপর রবিবার দিবাগত মধ্যরাতে শাহবাগ থানায় তারেকের মা জিডি করতে গেলে পুলিশ তদন্ত করে জিডি নেয়ার কথা জানায়।

এর মধ্যে মঙ্গলবার তাকে রিমান্ডে নেয়ার খবরও আসে। তবে বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে তিনি ফেসবুক লাইভে আসেন।

তারেক বলেন, ‘আমি গ্রেপ্তার হইনি। আমি এখন আমার বাবার সঙ্গে আছি। আপনারা ভুল খবর প্রচার করে মানুষকে বিভ্রান্ত করবেন না। লিফলেট বা ব্যানার বানানোর কারণে রিমান্ড দেওয়া হবে বা মানুষকে গ্রেপ্তার করা হবে এমন ঘটনা আসলে ঘটে না। আমার গ্র্রেপ্তারের খবরে বাবা-মা, পরিবারের সবাই দুচিন্তা করছিল।...সবাই ভালো থাকবেন আমার জন্য দোয়া করবেন।’

শনিবারের কথা উল্লেখ করে কোটা আন্দোলনের নেতা বলেন, ‘সেদিন আমি ব্যানার বানাতে ফকিরাপুলে গিয়েছিলাম। সেখানকার মালেক ম্যানশনের একটি দোকানে লিফলেটের জন্য সিটগুলো জমা দেই। এসময় দেখি আমাকে অনেকে অনুসরণ করছে।’

বাবার সাথে তারেক

‘ওই সময় আমি আমার মোবাইল ফেলে রেখে দৌঁড়ে পালিয়ে যাই। আমি কোনোভাবে একটি মোবাইল জোগাড় করে ফেসবুক লাইভে আসলাম। এখনও আমার সিমগুলো তাদের কাছে আছে।’

তবে কারা তাকে অনুসরণ করছিল, আর তার ফোন কাদের কাছে রয়েছে, সে ব্যাপারে লাইভে কিছু পরিষ্কার করে বলেননি তারেক।

‘আমি খুব অসুস্থ। আমার জন্য সবাই দোয়া করবেন। অনেক জ্বর গায়ে। আমি ডাক্তারের কাছে গিয়েছিলাম আবার ডাক্তারের কাছে যাব। মানসিকভাবে অনেকটা হ-য-ব-র-ল অবস্থায় আছি।’

‘কারণ, আমি আছি ভয়ে ভয়ে। আর এদিকে প্রচার করা হচ্ছে আমাকে রিমান্ডে নেওয়া হচ্ছে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। অতি উৎসাহে কোটা আন্দোলনের বেশি বাড়াবাড়ি করা ঠিক না।’

কোটা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর আস্থা রাখছেন তারেক। বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী যেখানে আশ্বস্ত করেছেন যে, কোটা নিয়ে কমিটি হয়েছে এবং প্রজ্ঞাপন দেওয়া হবে। আপনারা বিশ্বাস রাখতে পারেন। এবং বিশ্বাসে রেখে সেই অনুযায়ী কাজ করতে পারেন। বিভিন্ন মহল না রকম অপপ্রচার চালাচ্ছে এই আন্দোলনের অনুপ্রবেশের জন্য। সেই বিষয়ে আপনারা নজর রাখবেন।’

‘কারণ, এই আন্দোলন ছিলো কোটার ইস্যুতে। এখানে কোন রাজনৈতিক ইস্যু ছিল না। তাই রাজনৈতিক ইস্যু ঢোকে এমন কিছু করবেন না। সবাই ভালো থাকবেন, আমি ভালো আছি।’

ঢাকাটাইমস/১৮জুলাই/এসএস/ডিএম

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত