এসআইয়ের বিরুদ্ধে টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৮ জুলাই ২০১৮, ২২:০২ | প্রকাশিত : ১৮ জুলাই ২০১৮, ২২:০১

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে মাদক উদ্ধারের সময় বসতঘর থেকে দেড় লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে এক পুলিশ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে। হাতিয়ে নেয়া টাকা ফেরত পেতে ভুক্তভোগীর স্ত্রী টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপারের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

অভিযোগে জানা গেছে, গত ১১ জুলাই রাতে মির্জাপুর থানার উপ পরিদর্শক সোহেল কদ্দুছের নেতৃত্বে ৬/৭ জনের পুলিশ দল পৌর এলাকার বাওয়ার কুমারজানী উত্তরপাড়ায় আব্দুস ছামাদের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে চোলাই মদ ও মদ তৈরি সরঞ্জামসহ আব্দুস ছামাদকে আটক করে। এ সময় পুলিশ আব্দুস ছামাদকে ভয়ভীতি দেখায় ও চরথাপ্পর মারে। এক পর্যায়ে এসআই সোহেল কদ্দুছ এক লাখ টাকা দিলে আব্দুস ছামাদকে ছেড়ে দেবে বলে প্রস্তাব দেয়। প্রস্তাবে রাজি হয়ে আব্দুস ছামাদ তার বসতঘরের সুকেসের ড্রয়ারের তালা খুলে টাকা বের করতে গেলে সুকেইসে থাকা ১ লাখ ৬০ হাজার টাকার পুরোটায় এসআই সোহেল কদ্দুছ হাতিয়ে নেয়। পরে চোলাই মদ, মদ তৈরির সরঞ্জাম ও নগদ ৫ হাজার ৩শ টাকা উদ্ধার দেখিয়ে আব্দুস ছামাদের নামে মামলা দিয়ে জেলহাজতে পাঠিয়ে দেয়। বাকি ১ লাখ ৫৪ হাজার ৭শ টাকা চাইতে গেলে এসআই সোহেল কদ্দুছ টাকা না দিয়ে নানা কথা বলতে থাকেন বলে আব্দুস ছামাদের স্ত্রী খোরশেদা বেগম তার লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করেন।

পুলিশ সুপার বরাবর আবেদন করার কথা জানিয়ে খোরশেদা বেগম জানান, ওই রাতে এসআই সোহেল কদ্দুছ তার স্বামীকে আটকের পর ভয়ভীতি দেখায় ও মারপিট করে। পরে ছেড়ে দেয়ার কথা বলে টাকাগুলো তার সামনেই হাতিয়ে নেয়। তিনি তদন্ত সাপেক্ষে হাতিয়ে নেয়া টাকা ফেরত পেতে পুলিশ সুপারের সহায়তা কামনা করেন।

মোবাইল ফোনে কথা হলে এসআই সোহেল কদ্দুছ অভিযোগ অস্বীকার করেন।

এ ব্যাপারে টাঙ্গাইলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শরীফের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, তদন্ত সাপেক্ষে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

(ঢাকাটাইমস/১৮জুলাই/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত