বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের নতুন উপ-উপাচার্য রফিকুল আলম

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৬ আগস্ট ২০১৮, ১৯:৩২

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির কিডনি বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম।

গত বৃহস্পতিবার বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর ও রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ আগামী তিন বছরের জন্য তাকে এই নিয়োগ দেন। গত ২ আগস্ট থেকে তার এই নিয়োগ কার্যকর হয়।

বিএসএমএমইউয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা ও সেকশন অফিসার প্রশান্ত কুমার মুজমদার স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এই তথ্য জানানো হয়।

নবনিযুক্ত উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম ইতোমধ্যে দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন। দায়িত্ব গ্রহণের পর তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের বি ব্লকে স্থাপিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করেন। এ সময় বিএসএমএমইউয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়–য়া উপস্থিত ছিলেন। আরও উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ডা. সাহানা আখতার রহমান, মেডিকেল টেকনোলজি অনুষদের ডিন, বক্ষব্যাধি বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল হান্নান, গ্রন্থাগারিক ও পরিচালক অধ্যাপক ডা. মো. মনিরুজ্জামান খান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সহযোগী অধ্যাপক ডা. জিল্লুর রহমান ভূঁইয়া, সহকারী প্রক্টর ও কার্ডিওলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. এস এম মোস্তফা জামান, নিউরোসার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. হারাধন দেবনাথ, সহকারী প্রক্টর ও সহযোগী অধ্যাপক ডা. মো. রেজাউল আমিন, চিফ এস্টেট অফিসার ডা. এ কে এম শরীফুল ইসলাম প্রমুখ।

বিশিষ্ট কিডনি রোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ডা. মুহাম্মদ রফিকুল আলম ১৯৫৮ সালের ১ মার্চ চট্টগ্রাম জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ১৯৮২ সালে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করেন। তিনি ১৯৯২ সালে বাংলাদেশ কলেজ অফ ফিজিশিয়ান্স অ্যান্ড সার্জন্স থেকে এফসিপিএস (মেডিসিন) ও ১৯৯৫ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমডি (নেফ্রলজি) ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি বর্তমানে বাংলাদেশ রেনাল অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট, অ্যাসোসিয়েশন অব ফিজিশিয়ান্স অব বাংলাদেশ (এপিবি)’র ভাইস-প্রেসিডেন্ট এবং সোসাইটি অফ অর্গান ট্রান্সপ্ল্যান্টেশন-এর ভাইস-প্রেসিডেন্ট হিসেবে সফলভাবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন। দেশি-বিদেশি জার্নালে তার অর্ধশতাধিক প্রকাশনা রয়েছে। তার প্রকাশিত একটি বইয়ের নাম ‘কিডনি নিয়ে যতকথা’।

ব্যক্তিজীবনে তিনি দুই কন্যা সন্তানের জনক। তার দুই কন্যা ফারিবা তাবাসসুম এবং পারিসা তারান্নুম পেশায় চিকিৎসক। তার সহধর্মিনী হলেন সাবেক শিক্ষিকা মিসেস শাহিন আলম।

(ঢাকাটাইমস/০৬আগস্ট/এএ/জেবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

প্রশাসন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত