পোশাক শ্রমিক শিউলীর মৃত্যু: চালকসহ গ্রেপ্তার ৩

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৯ আগস্ট ২০১৮, ২১:৫৯

টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে চলন্ত বাস থেকে পড়ে পোশাক শ্রমিক শিউলী বেগম নিহত হওয়ার ঘটনার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। এই ঘটনার সাথে জড়িত বাসের চালক ও তার ছোট ভাই এবং শিউলীর সহকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

অন্যদিকে যে বাসটিতে উঠে শিউলী তার কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন সেই বাসটিও জব্দ করা হয়েছে।  

বৃহস্পতিবার রাত সোয়া ৮টার দিকে মির্জাপুর থানায় এক লিখিত বক্তব্যে মির্জাপুর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মো. আফসার উদ্দিন খাঁন এ তথ্য জানান।

এ সময় মির্জাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এ কে এম মিজানুল হক, পরিদর্শক (তদন্ত) শ্যামল কুমার দত্ত উপস্থিত ছিলেন।

অন্যদিকে বাসচালক রুহুল আমিন রনি শেখ বৃহস্পতিবার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. আশিকুজ্জামানের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

সহকারী পুলিশ সুপার আফসার উদ্দিন তার লিখিত বক্তব্যে জানান, গত ২৬ জুলাই সকাল ৭টার দিকে ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের চরপাড়া থেকে শিউলী ও তার সহকর্মী আরিফ গ্রামীণ পরিবহনের একটি খালি বাসে উঠে কর্মস্থল কমফিট কম্পোজিট মিলে যাচ্ছিলেন। বাস ছাড়ার পরপরই আরিফ শিউলীর সিটে গিয়ে বসেন এবং তার শরীরে হাত দেন। এ সময় দুজনের মধ্যে ধস্তাধস্তি হয়। এক পর্য়ায়ে শিউলী বাস থেকে বাঁচাও বাঁচাও বলে চিৎকার করতে থাকেন। এ সময় শিউলী বাসের দরজা কাছে গেলে আরিফ শিউলীকে ধাক্কা দিয়ে চলন্ত বাস থেকে ফেলে দিলে বাসের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই শিউলী মারা যান বলে সহকারী পুলিশ সুপার আফসার উদ্দিন সাংবাদিকদের জানান। এ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অপরাধে বাসচালক রুহুল আমিন রনি শেখ ও তার ছোট ভাই সোহেল রানা শেখকে কালিয়াকৈর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

রনি ও রানা নড়াইল জেলার লোহাগড়া থানার পাংখার চর গ্রামের মুক্তার শেখের ছেলে।

অন্য আসামি আরিফ মির্জাপুর উপজেলা সদরের পোষ্টকামুরী চরপাড়া গ্রামের জয়নাল মিয়ার ছেলে।

(ঢাকাটাইমস/৯আগস্ট/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত