দেশে-বিদেশে গোপন বৈঠক, আমরাও প্রস্তুত: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৮ আগস্ট ২০১৮, ১৮:২৭ | প্রকাশিত : ১৮ আগস্ট ২০১৮, ১৫:৪১

দেশে আন্দোলন করতে দেশে বিদেশে চক্রান্ত চলছে বলে জানতে পেরেছে সরকার। আর ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তারাও প্রস্তুত পুরোপুরি।

নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে ব্যবহারের চেষ্টার কথা তুলে ধরে আওয়ামী লীগ নেতা বলেন, ‘আমরা জানি, আরও এরকম আন্দোলন করার চক্রান্ত আছে। গোপন গোপন বৈঠক হচ্ছে, দেশে হচ্ছে বিদেশে হচ্ছে। এ ব্যাপারে আমরা যথেষ্ট সতর্ক ও প্রস্তুত আছি।’

‘সকাল থেকে রাত পর্যন্ত আমাদের অফিস সক্রিয় থাকে। প্রতিদিন আমরা পরিস্থিতির মূল্যায়ন করি। কোন বিষয়ে আমাদের যদি ঘাটতি থাকে নেত্রীর সঙ্গে পরামর্শ করে সিদ্ধান্ত নেই এবং এগিয়ে যাই।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটি আয়োজিত ‘গুজব সন্ত্রাস-অপপ্রচার রুখে দাঁড়াও বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক আলোচনায় কথা বলছিলেন কাদের।

অনুষ্ঠানের শুরুতে সরকার উৎখাতে বিএনপি-জামায়াতের ষড়যন্ত্র, আগুন-সন্ত্রাস, জ্বালাও-পোড়াও ও গুজব-অপপ্রচার নিয়ে একটি ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

এরপর সম্প্রতি নিরাপদ সড়ক দাবির আন্দোলনকে কেন্দ্র করে শিক্ষার্থীদের উস্কানি দিতে অপপ্রচার ও গুজব নিয়ে মতামত জানান বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থী ও শিক্ষকরা।

গত ২৯ জুলাই বিমানবন্দর সড়কে বাস চাপায় দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পরদিন থেকে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে নামে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা। আর তাদের রাস্তায় অবস্থান প্রলম্বিত হওয়ার সুযোগ নেয় বিভিন্ন গোষ্ঠী।

শিক্ষার্থীদের পোশাক পরে অছাত্ররা অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে যোগ দেয় এবং ৪ আগস্ট আওয়ামী লীগের ধানমন্ডি কার্যালয়ে ছাত্র হত্যা ও ছাত্রী ধর্ষণের গুজব ছড়ানো হয়। এরপর হামলা হয় ওই কার্যালয়ে, ঘরে সংঘর্ষ। কিন্তু পরে ফাঁস হয়ে যায় এই অপচেষ্টা, শান্ত হয়ে আসে পরিবেশ।

সেদিনের ঘটনা তুলে ধরে কাদের বলেন, ‘বারবার অফিস থেকে ফোন করেছিলাম। নেত্রী পার্টি অফিসের গেটে অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আসছে। ওরা আক্রমণ করবে, আমরা কী করব? নেত্রী বললেন, মার খাও কিন্তু উত্তেজিত হওয়া চলবে না।’

‘নেত্রী যদি এই ধৈর্য ধরার পরামর্শ না দিতেন, ছাত্রছাত্রীদের উপর বলপ্রয়োগ করা যাবে না পুলিশকে যদি এই নির্দেশনা না দিতেন তাহলে কি পুলিশ ধৈর্য ও সংযম দেখাতে পারত?’

‘তিনি (প্রধানমন্ত্রী) যথাযথভাবে পরিস্থিতি মনিটরিং করেছেন এবং মোকাবেলা করেছেন’- যোগ করেন কাদের।

‘কোটা আন্দোলনের উপর বিএনপি ও তার সাম্প্রদায়িক দোসররা ভর করেছিল। লন্ডন থেকে নির্দেশনা এসেছে। ভয়ংকর আরও কিছু হতে পারত কিন্তু সেটা সরকার নাইসলি পরিস্থিতি হ্যান্ডেল করেছেন এবং সেটা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।’

নির্বাচনের প্রক্রিয়া পরিবর্তন বিষয়ে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমানের দাবি নিয়ে কাদের বলেন, ‘বিএনপির নেতাদের নির্বাচনের প্রক্রিয়া বদলানোর দাবি মামাবাড়ির আবদার।’

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটির সদস্য সচিব হাছান মাহমুদের সভাপতিত্বে সভা পরিচালনা করেন দলের উপ-প্রচার  ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন। আরও বক্তব্য রাখেন বেসরকারি স্যাটেলাইট টেলিভিশনের সিইও মোজাম্মেল বাবু, ভিকারুনন্নেসা স্কুলের শিক্ষার্থী জাফরিন আহমেদ রূপন্তী, সিটি কলেজের শিক্ষার্থী মানরাজ হোসেন শামীম, সিটি কলেজের সহকারী শিক্ষক আহসান হাসীব রাজা, অভিনেত্রী অরুনা বিশ্বাস প্রমুখ।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক শামসুন্নাহার চাঁপা, কার্যনির্বাহী সদস্য মারুফা আক্তার পপিও এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

ঢাকাটাইমস/১৮আগস্ট/টিএ/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত