সাধারণ জীবনযাপনের অঙ্গীকার ইমরানের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২০ আগস্ট ২০১৮, ১৭:২৫ | প্রকাশিত : ২০ আগস্ট ২০১৮, ১৭:২৩

পাকিস্তানের নতুন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান তিন বেডরুমের আবাসিক বাড়িতে উঠবেন। প্রধানমন্ত্রীর সামরিক সচিবের জন্য বরাদ্দকৃত বাড়িটি ব্যবহার করবেন বলে ঘোষণা করেছেন। পাকিস্তানি শাসক শ্রেণীর বিলাসবহুল জীবন যাপনকে ঔপনিবেশিক ধ্যান-ধারণা বলেও অভিহিত করেন তিনি।

প্রতিবেশী সব দেশের সঙ্গেই আলোচনা চান ইমরান খান। চান সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে। চান শান্তি। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেয়ার পরের দিন জাতির উদ্দেশে প্রথম বক্তৃতায় এই কথা বলছেন তিনি।

রবিবার রাতে ঘণ্টাখানেকের ওই বক্তৃতায় ভারত বা অন্য কোনও দেশের নাম করেননি ইমরান। তবে বলেছেন, ‘প্রতিবেশীদের সবার সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। আমি সম্পর্কের উন্নতি চাই। তা না-হলে পাকিস্তানে শান্তি আসবে না।’

দেশের বর্তমান আর্থিক সঙ্কট, ২৮ লাখ কোটি রুপি দেনার বোঝার জন্য আগের সরকারকে দায়ী করে ইমরান আবার বলেছেন, অর্থের অপচয় রুখবেন তিনি।

‘প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে ৫২৪ জন পরিচারক, ৮০টা গাড়ি, তার মধ্যে ৩৩টা বুলেটপ্রুফ। আমি দু’জন সাহায্যকারীকে রাখব, দু’টো বুলেটপ্রুফ গাড়ি থাকবে। বাকি গাড়িগুলো নিলাম করে টাকাটা সরকারি কোষাগারে দিয়ে দেব। আমার কোনও ব্যবসা নেই। আমার জীবনযাত্রাও সাদামাটা।’

দেশটির তহবিল ঘাটতি মোকাবেলায় এ পদক্ষেপ নেয়ার ঘোষণা দেন ইমরান। জঙ্গিদের হুমকির মুখে থাকা পাকিস্তানের কোনো প্রধানমন্ত্রীর জন্য এ পদক্ষেপকে সাহসী সিদ্ধান্ত হিসেবে দেখা হচ্ছে।

তিনি বলেন, পাকিস্তানের মানুষকে আমি বলতে চাই যে আমি সাদাসিধে জীবন যাপন করবো। গত শনিবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন ইমরান খান।

প্রবাসী পাকিস্তানিদের নিজের দেশে বিনিয়োগ ও ধনীদের নিয়ম মেনে কর দেয়ারও আহ্বান জানান ইমরান। ব্যক্তি পর্যায়ে কর ফাঁকির জন্য পাকিস্তান বিখ্যাত, দেশটির মোট জনসংখ্যার ১ শতাংশেরও কম লোক নিয়মিত আয়কর দেয় বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

‘কর দেয়া আপনাদের দায়িত্ব। মনে করুন এটি জিহাদ, আপনার দেয়া কর দেশের উন্নতিতে ব্যয় হবে’- বলেছেন পিটিআই প্রধান।

রবিবার সকালের শারীরচর্চার পরে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে পৌঁছে গিয়েছিলেন ইমরান। পরনে ট্র্যাকস্যুট, হাতে নোটবুক। পরে ইমরানের ফেসবুক পেজে পোস্ট করা হয় সেই ছবি। সঙ্গে একটা লাইন— ‘দেশ চালাতে হলে ছুটি বলে কিছু থাকে না।’

গতকাল ইমরানের মন্ত্রিসভার সদস্যদের নাম ঘোষণা করেছে তার দল। এদের মধ্যে ১২ জনই পারভেজ় মুশাররফের জমানায় গুরুত্বপূর্ণ পদে ছিলেন।

সোমবার সকালে ইসলামাবাদের প্রেসিডেন্ট হাউসে ইমরানের ২১ সদস্যের নতুন মন্ত্রিসভার মধ্যে ১৬ জন শপথ নিয়েছেন। প্রেসিডেন্ট মামনুন হুসাইন মনোনীত মন্ত্রীদের শপথ বাক্য পাঠ করান।

সূত্রের খবর, সব ঠিক থাকলে আগামী ৫ সেপ্টেম্বর পাকিস্তানে আসবেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও।

(ঢাকাটাইমস/২০আগস্ট/এসআই)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত