বেলাবোয় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১

ভৈরব প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২১ আগস্ট ২০১৮, ১০:০৬

নরসিংদীর বেলাব উপজেলার জঙ্গিয়া নতুনবাজার এলাকার ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে বাস ও লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১ জনে। এছাড়াও ওই দুর্ঘটনায় আহত হয়েছেন অন্তত ১৫ জন।

সোমবার রাত সাড়ে আটটার দিকে জঙ্গুয়া নতুন বাজার এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন সুনামগঞ্জের দুয়ারাবাজার এলাকার কাজিল হকের ছেলে সুজন (২৫), তার স্ত্রী সাবিনা বেগম (২০), একই এলাকার নুরু মিয়ার ছেলে আবুল হোসেন (৫৫), মৃত মন্নাফ মিয়ার ছেলে আবুল মিয়া (২৪), আসমত আলীর ছেলে মোবারক (১৮), কাশেম মিয়ার ছেলে শাহিন (১৮), আফতাব উদ্দিন (৫০), নেত্রকোণার চাপুনিয়া এলাকার মোরশেদ আলীর ছেলে রাকিবুল (৩০), একই এলাকার শফিক (২৬), সুমন (২২) এবং লেগুনা গাড়ির চালক নরসিংদীর শিবপুর থানার কাশেম মিয়ার ছেলে মাসুম (২৫)। আহতদের ভৈরবের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ভৈরব থেকে ছেড়ে আসা মহাখালীগামী ঢাকা বস পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা ভৈরবগামী যাত্রীবাহী একটি লেগুনার মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলেই আটজন এবং ভৈরব হাসপাতালে নেয়ার পর মারা যান দুইজন। এছাড়া নরসিংদী হাসপাতালে মৃত্যু হয় একজনের।

নিহতরা সবাই নরসিংদীর কাদির মোল্লার আদুরী গার্মেন্টস ও নির্মাণ শ্রমিকের কাজ করতেন। ঈদের ছুটিতে লেগুনা ভাড়া করে নরসিংদী থেকে ভৈরব যাচ্ছিলেন তারা। ভৈরব বাসস্ট্যান্ডে পৌঁছার পর তার সুনামগঞ্জের বাসে উঠতেন।

খবর পেয়ে ভৈরব হাইওয়ে থানা পুলিশ ও ভৈরব ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহগুলো উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন।

দুর্ঘটনার পর পর ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে এক ঘণ্টার জন্য গাড়ি চলাচল বন্ধ থাকে।

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে নরসিংদী জেলা পুলিশ সুপার সাইফুল আলম মামুন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহরিয়ার আলম, বেলাব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মে হাবিবা ঘটনাস্থলে যান।

নরসিংদী পুলিশ সুপার সাইফুল আলম মামুন জানান, বেপোরোয়াভাবে গাড়ি চালানোর কারণেই এই দুর্ঘটনা ঘটে।

ঢাকাটাইমস/২১আগস্ট/প্রতিনিধি/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত