শতকে শুরু, শতকেই শেষ

হিমু আক্তার, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৮:৩৭ | প্রকাশিত : ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৮:০৮

শুরুটা যেমন, ঠিক শেষটাও তেমন। ক্যারিয়ারের শুরুটা কাট করে বিদায়ী ক্ষণে পেস্ট করে দিলেন ইংলিশ তারকা অ্যালিস্টার কুক। লন্ডনের কেনিংটন ওভালে রুপকথার জন্ম দিলেন এই ক্রিকেট রাজপুত্র।

ভারতের বিপক্ষে শতরানের ইনিংস খেলে টেস্ট ক্রিকেট শুরু করা ‍কুক তার বিদায়ী টেস্টেও পেলেন ভারতকেই। অভিষেক টেস্টের মতোই প্রথম ইনিংসে ফিফটি আর দ্বিতীয় ইনিংসে শতরান করলেন এই বৃটিশ তারকা। ইতিহাসে এমনটি আর কেউ করতে পারেনি।

রবীন্দ্র জাদেজার বল আলতো ভাবে পুশ করে ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টে পাঠিয়ে এক রান নেওয়াই কথা ছিল কুকের। যেটা তার ইনিংসকে ৯৬ থেকে ৯৭ রানেই নিতে পারত।

কিন্তু কে জানত, দ্বিতীয় ইনিংসে বিদায়ী কুকের জন্য অন্য স্ক্রিপ্ট লিখে রেখেছিল ওভাল। নাহলে বুমরা ওভার থ্রোই বা কেন করলেন আর সেটা সরাসরি বাউন্ডারিই বা হবে কেন! চাইলেন এক রান পেয়ে গেলেন পাঁচটি রান। আর হয়ে গেল কুকের ইতিহাস।

পুরো ওভাল স্তব্ধ! কী হলো বুজতে কয়েক সেকেন্ড সময় নিল গোটা স্টেডিয়ামের কুকপ্রেমীরা। বিদায়ী নায়ক যখন হেলমেট খুলে ফেলে ব্যাট আকাশের দিকে উঁচু ধরলেন তখনই বাঁধভাঙা উল্লাসে মেতে উঠে ওভাল স্টেডিয়াম। চারদিকে করতালি, গোটা কয়েক মিনিট সবাই দাঁড়িয়ে অভিনন্দনের সাগরে ভাসিয়ে দিলেন নায়ককে।

স্কাই স্পোর্টসের স্ক্রিনে শুধু করতালিই নয় বরং ভেসে উঠল কুকের দুই কন্যার মুখ। কেউ কেউ চোখের জল মুছছে আবার কেউ প্ল্যাকার্ড হাতে দাঁড়িয়ে গিয়েছে। কয়েক মিনিট জুড়ে আনন্দ মেতে ছিল লন্ডনের স্টেডিয়ামটি।

৯৭ থেকে ১০১ তারপর ১৪৭। জীবনের শেষ টেস্টে রঙিন এক ইনিংস খেলেই আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারের সমাপ্তি ঘটালেন ইংল্যান্ড ওপেনার অ্যালিস্টার কুক। পাশাপাশি একাধিক ইতিহাস গড়ে বাইশ গজের ‘রান্না-বান্না’ শেষ করলেন বিদায়ী কুক। 

কুকের অভিষেক ও অবসর যেন একই সূত্রে গাঁথা। ভারতের বিপক্ষে ২০০৬ সালে অভিষেকে প্রথম ইনিংসে ফিফটি পর দ্বিতীয় ইনিংসে করেছিলেন সেঞ্চুরি। প্রথম ইনিংসে ৬০ আর দ্বিতীয় ইনিংসে ১০৪। ঠিক এক যুগ পর যেন সেই ম্যাচরই পুনঃপ্রচার দেখলেন কুক। বিদায়ী টেস্টেও একই দলের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে ফিফটির পর দ্বিতীয় ইনিংসে সেঞ্চুরি। প্রথমে ৭১ আর দ্বিতীয় ইনিংসে শতরান ১৪৭।

জীবনের শেষ টেস্টে সেঞ্চুরির সঙ্গে সঙ্গেই ইতিহাসে মাত্র দ্বিতীয় ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক ও বিদায়ী টেস্টের দুই ইনিংসেই ফিফটি-প্লাস রান করলেন অ্যালিস্টার কুক। বাঁহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্টের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকও হলেন তিনি।

অভিষেক ও বিদায়ী টেস্টে সেঞ্চুরি ক্রিকেটার হিসেবে হলেন পঞ্চম। অভিষেক টেস্ট ও বিদায়ী টেস্টে সেঞ্চুরি করা আগের চার ক্রিকেটার হলেন রেগি ডাফ (১৯০২-১৯০৫), বিল পন্সফোর্ড (১৯২৪-১৯৩৪), গ্রেগ চ্যাপেল (১৯৭০-১৯৮৪) ও মোহাম্মদ আজহারউদ্দীন (১৯৮৪-২০০০)। আর এই গ্রেটদের তালিকায় এবার যুক্ত হলেন বৃটিশ তারকা কুক।

টেস্ট ক্রিকেটের পঞ্চম সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক হয়ে গেলেন কুক। পেছনে ফেললেন শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি কুমার সাঙ্গাকারাকে। এই তালিকার প্রথম চারজন হলেন শচীন টেন্ডুলকার ১৫৯২১), রিকি পন্টিং (১৩৩৭৮), জ্যাক ক্যালিস (১৩২৮৯) ও রাহুল দ্রাবিড় (১৩২৮৮)।

এই ব্রিটিশ তারকা এখনও পর্যন্ত ১৬০টি টেস্ট খেলে শতরানের বিচারে এটি তাঁর ৩৩ তম। তার জীবনের সর্বোচ্চ স্কোর ২৯৪। আর লাল বলের ক্রিকেট ছাড়াও ৯২টি একদিনের আন্তর্জাতিকে পাঁচটি শতরান রয়েছে এই বাঁ হাতি ইংলিশ ওপেনারের। সবকিছু মিলিয়ে দুহাত ভরে অর্জনগুলো নিয়ে ক্যারিয়ারের সমাপ্তি টানলেন কুক।

অভিষেক ও অবসরে সেঞ্চুরি যে ক্রিকেট ইতিহাসে প্রায় অমরত্বের সেটারই স্বাধ পেলেন এই ইংলিশ তারকা। আর একই প্রতিপক্ষের বিপক্ষে অভিষেক এবং বিদায়ী ম্যাচের দ্বিতীয় ইনিংসেই শতরান- এটা ইংলিশ ক্রিকেট তো বটেই সারা বিশ্বেও এই বিরল নজির আর কোনো ক্রিকেটারের নেই।

(ঢাকাটাইমস/১১আগস্ট/এইচএ/ডব্লিউবি)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত