ছেলেসহ রাগীব আলী কারাগারে

ব্যুরো প্রধান, সিলেট
 | প্রকাশিত : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৩:২০

সিলেটের তারাপুর চা বাগানের বন্দোবস্ত নিয়ে ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতির মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন সিলেটের ব্যবসায়ী রাগীব আলী ও তার ছেলে আবদুল হাই। আদালতে তারা আত্মমর্পণ করে জামিন চাইলে আদালত জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন।

বুধবার দুপুরে সিলেটের অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক মোস্তাইন বিল্লাহ এ আদেশ দেন। আদালতের এপিপি সৈয়দ শামীম আহমদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, তারাপুর চা বাগানের বন্দোবস্ত নিয়ে ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতির মামলায় গত বছরের ২ ফেব্রুয়ারি সিলেটের মুখ্য মহানগর হাকিম সাইফুজ্জামান হিরো রাগীব আলী ও তার ছেলের ১৪ বছরের সাজা দেন।

রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করলে আপিল শুনানি শেষে গত ৯ আগস্ট সাজা বহাল রাখেন সিলেটের বিশেষ দায়রা জজ আদালত। একই সাথে উচ্চ আদালতের নির্দেশে জামিনে থাকা রাগীব আলী ও তার ছেলে আব্দুল হাইকে ১৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন বিচারক দিলিপ কুমার ভৌমিক।

নির্ধারিত সময়ের আগেই বুধবার আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চাইলে বিচারক তা নাকচ করে রাগীব আলী ও তার ছেলেকে কারাগারে পাঠান।

রাগীব আলী ১৯৯০ সালে ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতি করে প্রতারণার মাধ্যমে ভুয়া সেবায়েত সাজিয়ে তারাপুর চা-বাগানের ৪২২ দশমিক ৯৬ একর দেবোত্তর সম্পত্তি  দখল করেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

২০০৫ সালে ভূমি মন্ত্রণালয় ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারক (চিঠি) জালিয়াতি এবং সরকারের এক হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে কোতোয়ালি থানায় দুটি মামলা করেন সিলেট সদরের তৎকালীন ভূমি কমিশনার এসএম আব্দুল কাদের।

মামলা হওয়ার ১১ বছর পর সিলেটে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) অতিরিক্ত সুপার সারোয়ার জাহান ২০১৬ সালের ১০ জুলাই দুই মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র দেন।

স্মারক জালিয়াতি ছাড়াও প্রতারণার মাধ্যমে ভূমি আত্মসাতের অপর মামলায় গত বছরের ৬ এপ্রিল রাগীব আলীর ১৪ ও তার ছেলে আব্দুল হাইয়ের ১৬ বছরের সাজা হয়।

(ঢাকাটাইমস/১২সেপ্টেম্বর/এমএ/ওআর)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত