‘পানিসম্পদ ও মানবসম্পদ নিয়ে গবেষণা করলে ফল ইতিবাচক’

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৯:২৩

পানিসম্পদ ও মানবসম্পদ নিয়ে গবেষণা করলে এই দুটি সম্ভাবনাময় খাত ভবিষ্যতে ইতিবাচক ফল নিয়ে আসবে বলে মন্তব্য করেছেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশেষজ্ঞ এবং সেন্টার ফর জেনোসাইট স্টাডিজের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক অধ্যাপক ড. ইমতিয়াজ আহমেদ।

বলেছেন, ‘আমরা সবসময় স্বল্পতা নিয়ে কথা বলি। স্বল্পতার দিকে না তাকিয়ে সম্ভাবনার দিকে তাকাতে হবে। আমাদের অনেক সম্ভাবনা, সম্পদ। অতীত থেকে আমরা সমৃদ্ধশালী। মূলত আমাদের যা আছে তা কাজে লাগানোর জন্য গবেষণা করতে হবে।’

বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিক্ষক মিলনায়তনের (টিএসসি) অডিটোরিয়ামে এক অনুষ্ঠানে তরুণ গবেষকদের অনুপ্রাণিত করে এসব কথা বলেন ড. ইমতিয়াজ।

নবীনবরণ ও ফার্স্ট আন্ডারগ্রাজুয়েট রিসার্চ ফেলোশিপ প্রদান-২০১৮ উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা সংসদ অনুষ্ঠানটির আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি (শিক্ষা) অধ্যাপক নাসরীন আহমাদ।

অধ্যাপক ইমতিয়াজ বলেন, ‘দেশের গবেষণার বর্তমান অবস্থা বলতে চাই না। তবে অতীত থেকে আমরা শিক্ষা নিতে পারি। আমাদের গবেষণার মূল বিষয় হতে হবে এই যে, আমরা ভবিষ্যত কিভাবে পরিবর্তন করবো- সে বিষয়ে কাজ করা। গবেষণার মাধ্যমে আমাদের ভবিষ্যতকে পরিবর্তন করতে হবে। এই ক্ষেত্রে তরুণদের এই ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ দারুণ ভূমিকা রাখবে।’

পানি সম্পদ এবং মানসম্পদ বিষয়ে বাংলাদেশের গবেষণার দুটি বিশেষ সম্ভাবনার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘ভবিষ্যতে বাংলাদেশে পানি এবং মানবসম্পদের গবেষণা নিয়ে জোর দিতে হবে। বাংলাদেশে নদ-নদী অনেক। যা প্রচুর পানিসম্পদ। এখানে বৃষ্টিপাতও হয় অনেক, যার ৮০ শতাংশ বৃষ্টিপাত আমরা ব্যবহার করতে জানি না। এই পানি কিভাবে ব্যবহার করা যায় তা নিয়ে গবেষণা করতে হবে।’

‘আমাদের প্রবাসী শ্রমিকদের মজুরি কম। এরপরও তাদের হাত ধরে রেমিট্যান্স আসছে, যা প্রশংসনীয়। আমাদের জনগণকে মানসম্পদে পরিণত করতে হবে।  এই মানবসম্পদকে আরো কর্মঠ ও দক্ষ করে তুলতে হবে, কাজে লাগাতে হবে। যার জন্য নতুন নতুন পরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে। এর জন্য প্রচুর গবেষণা প্রয়োজন।’

নাসরীন আহমাদ বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের গবেষণা সংসদ একটি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। এটি তরুণদের গবেষণায় আসতে সাহায্য করছে। এই উদ্যোগ বাংলাদেশের গবেষণার পট পরিবর্তন করবে বলে বিশ্বাস করি।’

তরুণদের এমন উদ্যোগের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সবসময় শিক্ষার্থীদের সঙ্গে থাকবে বলেও জানান প্রো-ভিসি।

সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সাইফুল্লাহ সাদেকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অনুষ্ঠানে অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা সংসদের মডারেটর ড. মো. মনজুরুল করিম, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের ডেপুটি সেক্রেটারি ড. উত্তম কুমার দাস, বিশ্বধর্ম ও সংস্কৃতি বিভাগের সহযোগি অধ্যাপক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা সংসদের মডারেটর ড. ফাজরিন হুদা, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. আব্দুস সামাদ, কারাসের সিনিয়র রিসার্চ ফেলো কাজী সামিও শীশ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও প্রায় চার শতাধিক নবীন গবেষক উপস্থিত ছিলেন; যারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা সংসদের নতুন সদস্য।

ঢাকাটাইমস/১২সেপ্টেম্বর/বিইউ/ডিএম

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
Close