‘ইউএস-বাংলা’ বহরে যুক্ত হচ্ছে নতুন দুই বোয়িং

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:৩৮

বাংলাদেশের অন্যতম বেসরকারী বিমান সংস্থা ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান বহরে চলতি বছরের নভেম্বর মাসে সংযোজিত হতে যাচ্ছে নতুন দুইটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফট।

নভেম্বর মাসের প্রথম ও তৃতীয় সপ্তাহে পর্যায়ক্রমে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের পঞ্চম ও ষষ্ঠ বোয়িং এয়ারক্রাফট বিমান বহরে যুক্ত হবে বলে জানিয়েছেন ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স লিমিটেডের মার্কেটিং সাপোর্ট এন্ড পিআর মো. কামরুল ইসলাম।

বর্তমানে ইউএস-বাংলার বহরে ১৬৪ আসনের ৪টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ ও ৭৬ আসনের তিনটি ড্যাশ ৮-কিউ ৪০০ সহ মোট সাতটি এয়ারক্রাফট রয়েছে বলে জানান কামরুল।

তিনি বলেন, ‘বর্তমানে সংযোজনের অপেক্ষায় থাকা নতুন দইটি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এ ৮টি বিজনেস ক্লাস ও ১৫৯টি ইকোনমিক ক্লাসের আসনসহ মোট ১৬৭টি আসন রয়েছে।’

বিমান বহরে নতুন বোয়িং যুক্ত হলে আন্তর্জাতিক গন্তব্যে অধিক ফ্লাইট পরিচালনা দ্রুততম সময়ে বাস্তবায়ন সহজ হবে বলে মনে করছেন তিনি। একই সাথে বর্তমানে পরিচালিত বিভিন্ন আন্তর্জাতিক গন্তব্যে ফ্লাইট সংখ্যা বৃদ্ধি করারও পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান ইউএস বাংলার গণমাধ্যম শাখার এই প্রধান।

নতুন দু’টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ এয়ারক্রাফট ছাড়াও দ্রুততম সময়ে দু’টি ড্যাশ ৮-কিউ৪০০ এয়ারক্রাফট বিমান বহরে যুক্ত করার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান তিনি।

২০১৪ সালে ১৭ জুলাই দ্রুতগতি সম্পন্ন দু’টি ড্যাশ৮-কিউ৪০০ এয়ারক্রাফট দিয়ে ইউএস-বাংলা ঢাকা থেকে যশোরে উদ্বোধনী ফ্লাইট পরিচালনার মাধ্যমে যাত্রা শুরু করে।

“ফ্লাই ফাস্ট-ফ্লাই সেফ” স্লোগান নিয়ে যাত্রা শুরু করা ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের ড্যাশ ৮ কিউ৪০০ মডেলের একটি বিমান চলতি বছরের

১২ মার্চ নেপালের ত্রিভুবন বিমানবন্দরে বিধ্বস্ত হয়। ওই ঘটনায় বিমানের চালক-ক্রুসহ ৫১ জন নিহত হন। যার মধ্যে রয়েছেন ২৬ বাংলাদেশি।

ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স বর্তমানে সপ্তাহে প্রায় ৩০০টির অধিক অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট পরিচালনা করছে বলে জানান কামরুল।

তিনি জানান, ‘যাত্রা শুরুর পর থেকে চার বছরে প্রায় ৪৫ হাজার এর অধিক ফ্লাইট পরিচালনা করেছে, যা বাংলাদেশে বিমান চলাচলের ইতিহাসে একটি রেকর্ড।’

ইউএস-বাংলার বর্তমানে আন্তর্জাতিক রুট- সিঙ্গাপুর, কুয়ালালামপুর, ব্যাংকক, গুয়াংজু, মাস্কাট, দোহা ও কলকাতাসহ অভ্যন্তরীন রুট ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, সিলেট, যশোর, সৈয়দপুর, রাজশাহী ও বরিশাল রুটে নিয়মিতভাবে ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

ভবিষ্যত পরিকল্পনার অংশ হিসেবে, ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স জেদ্দা, দাম্মাম, রিয়াদ, হংকং, দিল্লী, চেন্নাই, কলম্বো, মালে সহ বিভিন্ন রুটে ফ্লাইট চালানোর পরিকল্পনা করছে বলে জানান ওই কর্মকর্তা।

(ঢাকাটাইমস/ ১৫সেপ্টেম্বর/এএকে/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

অর্থনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত