নেত্রকোণায় ছেলে হত্যার অভিযোগে মা গ্রেপ্তার

নেত্রকোণা প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:৩৩

নেত্রকোণার কেন্দুয়ায় শিশুপুত্র জনি  হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে মা মেহেরা আক্তারকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠিয়েছে।

বুধবার বিকালে পুলিশ রিমান্ড চাইলে বৃহস্পতিবার শুনানির জন্যে রেখে আদালত মেহের আক্তারকে কারাগারে পাঠায় বলে জানিয়েছেন কেন্দুয়া থানা ওসি ইমারত হোসেন গাজী।

এর আগে মঙ্গলবার গভীর রাতে মেহেরা আক্তার ও একই গ্রামের আবু ফকিরের ছেলে সন্তু মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়।

উপজেলার মোজাফর ইউনিয়নের গগডা আটকান্দিয়া গ্রামে দিনমজুর আব্দুল সোবানের স্ত্রী মেহেরা আক্তার। তাদের ছেলে জনি (১১) স্থানীয় গগডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ছিল।

গত ৯ সেপ্টেম্বর দুপুরে বাড়ির সামনের পুকুর থেকে জনির বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। পরে ১১ সেপ্টেম্বর জনির বাবা আব্দুল সোবান বাদী হয়ে থানায় অজ্ঞাতনামা আসামি করে একটি হত্যা মামলা করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ছামেদুল হক জানান, ১৬ সেপ্টেম্বর একই গ্রামের তমিজ উদ্দিন ফকিরের ছেলে সবুজ মিয়াকে (৪০) গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তিনি হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তি দেন। তার দেয়া তথ্য অনুযায়ী মেহেরা ও সন্তু মিয়াকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের  জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে নেত্রকোণার বিচারিক হাকিম আদালতে আবেদন করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, জমি বিরোধের জেরে একই গ্রামের প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতেই শিশু জনিকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে।

জন্ম হওয়ার কয়েকদিনের মাথায় চাচা আব্দুল ক্বারী দত্তক নেন জনিকে। সম্প্রতি আব্দুল ক্বারীর স্ত্রী ঝড়না আক্তার জীবিকার তাগিদে দেশের বাইরে চলে যাওয়ায় জনি তার মায়ের সাথে বসবাস করছিল। ৭ সেপ্টেম্বর দুপুরের খাবারের পর জনি খেলতে যায়। সন্ধ্যা গড়িয়ে গেলেও সে বাড়িতে না ফেরায় সারারাত খোঁজাখুঁজি করেও জনির সন্ধান মেলেনি। দুই দিনের মাথায় পুকুর থেকে বস্তাভরা অবস্থায় শিশুটির লাশ মেলে।

(ঢাকাটাইমস/১৯সেপ্টেম্বর/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত