পাল্টা মগজ ধোলাই চান এইচ টি ইমাম

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:৫৪ | প্রকাশিত : ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৭:৪০

দেশের তরুণ ও নবীন ভোটারদের কাছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আগামীর বাংলাদেশ কেমন হবে সেটা তুলে ধরতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ও নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির কো-চেয়ারম্যান এইচ টি ইমাম।

বলেছেন, ‘এ তরুণ প্রজন্মকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে ব্যাপক মগজ ধোলাই করা হয়েছে। এখন পাল্টা আরেক রকমের মগজ ধোলাই দিয়ে তাদের নিয়ে আসা কঠিন কাজ; কিন্তু তাদেরকে ফিরিয়ে আনতে হবে।’

শনিবার দুপুরে কৃষক লীগের বর্ধিত সভায় তিনি এ কথা বলেন। ১৯ বঙ্গবন্ধু এভিনউতে এই সভার আয়োজন করা হয়।

আগামী জাতীয় নির্বাচন বাংলাদেশের অস্তিত্বের নির্বাচন বলে মন্তব্য করে ইমাম বলেন, ‘সামনের নির্বাচন আমাদের জন্য বিশাল এক চ্যালেঞ্জ। এ চ্যালেঞ্জকে গ্রহণ করে আমরা অবশ্যই উৎরে যাবো। এ বিশ্বাস, আত্মবিশ্বাস এবং প্রত্যয় থাকতে হবে যে, বিজয়ের কোনও বিকল্প নেই।’

‘আগামী নির্বাচন আমাদের বাংলাদেশ ও স্বাধীনতার জন্য একটি অগ্নিপরীক্ষা, এখানে আমরা যদি কোনও ভাবে ব্যর্থ হই এবং পিছলিয়ে পড়ি তাহলে স্বাধীনতার শত্রুরা পাকিস্তান ও তাদের দোসরদের সঙ্গে মিলিত হয়ে বাংলাদেশের স্বাধীনতা বিনষ্ট করার চেষ্টা করবে।’

‘আর সেটি হলে আমরা (আওয়ামী লীগ) শুধু যে নিশ্চিহ্ন হবো তাই নয়, এ উন্নয়ন থাকবে না, এ দেশের স্বাধীনতা আক্রান্ত হবে। তাই আমাদের এ ভোট যুদ্ধে বিজয় লাভ করতে হবে, বিজয়ের কোনও বিকল্প নেই।’

‘কৃষক লীগের ভালো প্রার্থীরাও মনোনয়ন পাবেন

আগামী জাতীয় নির্বাচনে কৃষক লীগ থেকে ভালো প্রার্থীদের মনোনয়ন দেওয়া হবে উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের এই উপদেষ্টা বলেন, ‘অনেকেই হয়তো প্রার্থী হবেন, কৃষক লীগের ভালো প্রার্থীরাও মনোনয়ন পাবেন। জাতীয় নির্বাচনের ভোটযুদ্ধে আমাদের সব সংগঠনের নেতাকর্মীদের লাগবে। কঠোর পরিশ্রম করতে হবে, এর কোনও বিকল্প নেই। পরিশ্রম না করলে আমরা কিছুতেই সুফল ঘরে তুলতে পারবো না।’

‘আমাদের সম্পর্কে মানুষের ভুল ধারণা আছে। বঙ্গবন্ধু সম্পর্কেও ছিলো, এখনও অনেকেই বলে। কিন্তু তাদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দিন সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ডসমূহ। আওয়ামী লীগ থাকাকালীন সময়ে দেশে কোনও সারের সংকট হবে না।’

মানুষের মন জয় করা আওয়ামী লীগের নির্বাচনী কৌশল জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের নির্বাচনী কৌশল একটাই, আর তা হলো মানুষের মনজয় করা। আমাদের ভালো কাজগুলো তুলে ধরা। আমরা শত্রুর সমালোচনা করবোই, তার আগে আমাদের নিজের ভালোগুলোও তুলে ধরতে হবে। আমাদের দলের চিন্তাভাবনা যে কত সুদূরপ্রসারি তাও তুলে ধরতে হবে।’

‘একত্র হয়ে ভবিষ্যতের পথে এগিয়ে চলুন’

দলের সবাইকে একত্র হয়ে ভবিষ্যতের পথে যেতে হবে পরামর্শ দিয়ে ইমাম বলেন, ‘একজন প্রার্থী হবেন বলে আমাদের আরেকজন প্রার্থীকে খারাপ বলবেন। এতে আমাদের শত্রুরা বলবে- তোমরা নিজেরাই বলছো তোমাদের লোকগুলো খারাপ। আমাদের কোনও এমপি যদিও খারাপ থাকে, এখন কিন্তু সেগুলো বলার সময় না।’

‘বরং দলের ওপর আস্থা রাখুন, নেতৃত্বের উপর আস্থা রাখুন, তারাই ব্যবস্থা করবেন। নিজেদের মধ্যে আত্মসমালোচনা করুন। কিন্তু ওই এমপির আমলে কোনও উন্নয়ন হয়নি, মানে হলো আওয়ামী লীগের আমলে কোনও উন্নয়ন হয়নি। এগুলো বাদ দিয়ে একত্র হয়ে দল গঠন করে ভবিষ্যতের পথে এগিয়ে চলুন।’

কৃষক লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লার সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, কৃষক লীগের সাধারণ সম্পাদক খন্দকার শামসুল হক রেজা, সহ-সভাপতি ও ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য আরিফুর রহমান দোলন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সমীর চন্দ্র চন্দ, উম্মে কুলছুম স্মৃতিসহ বিভিন্ন জেলা থেকে আগত নেতারা বক্তব্য রাখেন।

ঢাকাটাইমস/২২সেপ্টেম্বর/টিএ/ডিএম

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত