সেলিম ওসমানের আসনে এবার আ.লীগের শোডাউন

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:০৭ | প্রকাশিত : ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১:০০

জাতীয় পার্টির সাংসদ সেলিম ওসমানের নারায়ণগঞ্জ-৫ (শহর-বন্দর) আসনে এবার নৌকা প্রতীকের প্রার্থীর দাবিতে বিশাল শোডাউন করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ।

আজ শনিবার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ শহরে আওয়ামী লীগের কয়েক হাজার নেতাকর্মী নিয়ে এই শোডাউন করেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক জি এম আরাফাত।

নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে মহাজোটের শরিক দল জাতীয় পার্টির এমপি হিসেবে রয়েছেন এ কে এম সেলিম ওসমান। গত নির্বাচনে আসনটি জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দিলে এমপি নিবর্অচিত হন নাসিম ওসমান। পরে তিনি মারা গেলে উপনির্বাচনে এমপি নির্বাচিত হন তার ভাই সেলিম ওসমান।

কিন্তু আগামী নির্বাচন সেলিম ওসমানের জন্য সহজ হবে বলে মনে হচ্ছে না। জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়নের আশা করছেন সেলিম ওসমানের ভাই প্রয়াত নাসিম ওসমানের স্ত্রী পারভীন ওসমান। তিনি সম্প্রতি ঘোষণা করেছেন, জাপার চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ তাকে এই আসনে প্রার্থিতার সংকেত দিয়েছেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মী নিয়ে স্বামীর কবর জিয়ারতের মধ্য দিয়ে নির্বাচনী জনসংযোগ শুরু করেছেন।

এদিকে গত দেড় বছর ধরে নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে আওয়ামী লীগের ৯ জন মনোনয়ন-প্রত্যাশী আগামী নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী দাবি করে আসছেন। এমন দাবির সঙ্গে একমত পোষণ করে সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন বলছেন আগামী নির্বাচনে আর জাতীয় পার্টিকে ছাড় দেয়া যাবে না।

জি এম আরাফাতও কয়েক বছর ধরে এ আসনে নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন প্রত্যাশা নিয়ে নিয়মিত কর্মিসভা, গণসংযোগ করছেন। আজ কয়েক হাজার নেতাকর্মী নিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার কাছে এ আসনে নৌকা প্রতীকের দাবিতে শোডাউন করেন তিনি।

নারায়ণগঞ্জ শহরের ২ নং রেলগেট এলাকার আওয়ামী লীগ কার্যালয় থেকে মিছিলটি বের হয়। চাষাঢ়া গোলচত্বর ঘুরে মিছিলটি আবার দলীয় কার্যালয়ের সামনে ফিরে যায় এবং সেখানে সমাবেশের মাাধ্যমে কর্মসূচি শেষ হয়।

সমাবেশে জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, সিটি কর্পোরেশনের সাবেক প্যানেল মেয়র মনিরুজ্জামান, আওয়ামী লীগ নেতা আক্তারুজ্জামান, সাখাওয়াত হোসেন সুমন, সেলিম আল দিনার প্রমুখ বক্তব্য দেন।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে এ আসনে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন পেয়েছিলেন কেন্দ্রীয় শ্রমিক লীগ সভাপতি শুক্কুর মাহামুদ। ওই নির্বাচনে জাতীয় পার্টিকে আসনটি ছেড়ে দিলে এখানে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হন পার্টির তৎকালীন প্রেসিডিয়াম সদস্য নাসিম ওসমান। ওই বছরের ৩০ এপ্রিল তার মৃত্যুর পর ২৬ জুন অনুষ্ঠিত উপনির্বাচনে লাঙ্গল প্রতীকে এমপি নির্বাচিত হন ছোট ভাই এ কে এম সেলিম ওসমান। উপনির্বাচনেও আসনটি জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দেয় আওয়ামী লীগ।

সেলিম ওসমানের আরেক ভাই আওয়ামী লীগ নেতা এ কে এম শামীম ওসমান নারায়ণগঞ্জ-৪ (ফতুল্লা-সিদ্ধিরগঞ্জ) আসনের এমপি।

(ঢাকাটাইমস/২২সেপ্টেম্বর/মোআ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত