অস্কারে লড়বে ‘ভিলেজ রকস্টার্স’

বিনোদন ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০৯:০৭

অসম্ভবকে সম্ভব করে ফেললেন ভারতের আসামের নতুন চলচ্চিত্র নির্মাতা রীমা দাস। দীর্ঘ চার বছর পরিশ্রম করে একটি ছবি তিনি নির্মাণ করেছেন। নাম দিয়েছেন ‘ভিলেজ রকস্টার’। যেটাতে তিনি এখনকার উন্নত প্রযুক্তির ক্যামেরা রেখে হাতে চালিত ক্যামেরায় শুটিং করেছেন। এমনকী, ওই সকল মানুষকে চরিত্র হিসেবে নিয়েছেন, যারা কোনোদিনও অভিনয় করেননি।

কিন্তু দেশের নামকরা সব পরিচালক-প্রযোজকদের অবাক করে আসামি ভাষায় নির্মিত রীমা দাসের ‘ভিলেজ রকস্টার্স’ অস্কারে মনোনয়ন পেয়েছে। যেখানে মনোনয়নের জন্য ভারত থেকে মোট ২৯টি ছবি পেশ করা হয়েছিল। সেগুলোর মধ্যে ছিল রাজি, পদ্মাবত, হিচকি, অক্টোবর, লাভ সোনিয়া, গুলাবজাম, মহানটী, পিহু, করবী হাওয়া, ভোগড়া, রেবা, বায়োস্কোপওয়ালা, মান্টো, ১০২ নট আউট, প্যাডম্যান, ভয়ানক, আজ্জি, নুড, ও গালি গুলিয়ান-এর মতো সব ছবি।

কিন্তু ‘ভিলেজ রকস্টার্স’-কেই বেছে নিয়েছে ‘ফিল্ম ফেডারেশন অব ইন্ডিয়া’। এই ছবিটি ২০১৯ সালে ফিল্ম জগতের সবচেয়ে দামি ও বড় পুরস্কার অস্কার জেতার লক্ষ্যে ভারতের হয়ে লড়বে। ‘ভিলেজ রকস্টার্স’ চলতি বছরে ভারত থেকে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতেছে। এছাড়া দেশ-বিদেশে অন্তত ৫০টি চলচিত্র উৎসবে পুরস্কৃত ও প্রশংসিত হয়েছে। এবার দৌড়বে অস্কারের লক্ষ্যে। আজ পর্যন্ত কোনও ভারতীয় ছবি যা ছুঁতে পারেনি।

অস্কারের দৌড়ে এই প্রথম আসাম তথা উত্তর-পূর্ব ভারতের কোনও ছবি জায়গা করে নিল। খবর পেয়ে অন্যদের মতো তাই অবাক পরিচালক রীমাও। বললেন, ‘ভাবতেও পারিনি, গ্রামের ছেলে-মেয়েদের নিয়ে নামমাত্র খরচে তৈরি ছবিটা এমন স্বপ্নের উড়ানে পৌঁছে যাবে। এমন কিছুর ইঙ্গিত আগেই পেয়েছিলাম। কিন্তু নিশ্চিত না হয়ে তখন কিছু বলিনি। আজ আমার জীবনের সবচেয়ে আনন্দের দিন।’

‘ভিলেজ রকস্টার্স’-এর গল্পের কেন্দ্রে ১০ বছরের শিশু ধুনু এবং তার গানের দল গড়ার স্বপ্ন।  ‍ধুনুর স্বপ্ন একটি রক ব্যান্ড প্রতিষ্ঠা করা। এ জন্য সে তার গ্রামে একটি ইলেকট্রিক গিটারের সন্ধানে বের হয়। ধুনু চরিত্রে অভিনয় করেছে শিশুশিল্পী বনিতা দাস। এই বনিতার মধ্যে পরিচালক রীমা দাস তার শৈশবের দস্যিপনা খুঁজে পেতেন। তাই গ্রামের ছেলে-মেয়েদের নিয়ে নিজেই ছবিটির চিত্রগ্রহণ করেছেন তিনি। খোলা আকাশের নিচে এভাবেই তৈরি হয়েছে ছবি।

প্রসঙ্গত, গত বছর রাজকুমার রাও ও পঙ্কজ ত্রিপাঠী অভিনীত ‘নিউটন’ ছবিটিকে অস্কারের জন্য মনোনয়ন দিয়েছিল ভারত। ২০১৭ সালে ভারত থেকে সেরা ছবির তকমা পেয়েছিল এটি। দেশে প্রশংসা কুড়িয়ে পরে যায় অস্কারের মঞ্চে। কিন্তু অমিত মাসুরকারের ছবিটি অস্কার জিততে পারেনি। এবার রীমা দাসের ‘ভিলেজ রকস্টার্স’ কি পারবে? উত্তর মিলবে ২০১৯ সালে।

ঢাকাটাইমস/২৩ সেপ্টেম্বর/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত