ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন

আলোচনার কী আছে: প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৫ অক্টোবর ২০১৮, ১৮:০৪ | প্রকাশিত : ১৫ অক্টোবর ২০১৮, ১৭:৫৮

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, এ আইনতো জাতীয় সংসদে পাস হয়ে গেছে। এখন এ বিষয়ে মন্ত্রিসভার বৈঠকে আলোচনার কী আছে? যুক্তরাজ্যের উদাহরণ টেনে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সেখানে (যুক্তরাজ্যে) এ আইন আরও কড়া।

সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রীর সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

বৈঠকে উপস্থিত একাধিক মন্ত্রী জানান, বৈঠকের নিয়মিত এজেন্ডা `সম্প্রচার আইন-২০১৮’ এর বিষয়ে আলোচনার সময় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের কিছু ধারার বিষয়ে সম্পাদক পরিষদসহ সাংবাদিক নেতাদের আপত্তি রয়েছে উল্লেখ করে আলোচনা শুরু করলে প্রধানমন্ত্রী একথা বলেন।

সম্প্রতি পাস হওয়া ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের নয়টি ধারা বাতিলের দাবি জানিয়ে ধারাগুলো মুক্ত গণমাধ্যম ও স্বাধীন সাংবাদিকতার পরিপন্থী বলে মন্তব্য করছে সম্পাদক পরিষদ। ধারাগুলো সংশোধনের বিষয়ে ৬ দফা দাবি পেশের পর সোমবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেন সম্পাদকরা।

বৈঠকে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ‘আমরা জাতীয় সংসদে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনটি পাস করেছি। কিন্তু এ আইনের কিছু ধারায় পরিবর্তন চেয়ে সম্পাদক পরিষদসহ সাংবাদিক নেতারা বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করছেন। এরই অংশ হিসেবে আজকে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করেছে সম্পাদক পরিষদ।’ 

এর প্রেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এসব সম্পাদক তো বিভিন্ন সময় ভুল নিউজ ছেপে সেটি তাদের নয়, একটি সরকারি গোয়েন্দা সংস্থার নিউজ বলে দুঃখ প্রকাশও করেন।’

তিনি বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে এত উদ্বেগ কেন? ব্যক্তিগত বা গোষ্ঠীগত স্বার্থ চিন্তা থেকে বিবেচনা করলে হবে না। সমগ্র রাষ্ট্র ও সমাজের কল্যাণের দৃষ্টিভঙ্গি থেকে বিবেচনা করতে হবে। বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন কোনো বাধা হবে না বলেও জানান তিনি। পাশাপাশি বলেন, যুক্তরাজ্যের এ সংশ্লিষ্ট যে আইন রয়েছে সেটা আরও বেশি কড়া।

সরকার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন প্রণয়নের উদ্যোগ নেওয়ার পর থেকে এর বিভিন্ন ধারা নিয়ে আপত্তি জানিয়ে আসছিল সম্পাদক পরিষদসহ সাংবাদিকদের বিভিন্ন সংগঠন। তাদের আপত্তির সুরাহা না করেই গত ১৯ সেপ্টেম্বর সংসদে ওই আইন পাস করা হয়।

গত শনিবার ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের নয়টি ধারা নিয়ে আপত্তির বিষয়ে তিন মন্ত্রী সম্পাদক পরিষদকে দেয়া প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করেছেন বলে সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগও করে সম্পাদক পরিষদ। সম্পাদক পরিষদ ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের বিরোধী নয় উল্লেখ করে সম্পাদকরা বলেন, ‘পাস হওয়া আইনটি স্বাধীন সাংবাদিকতায় বড় বাধা হয়ে দাঁড়াবে।’ আলোচনার নামে কোনো প্রহসন সম্পাদক পরিষদ মেনে নেবে না উল্লেখ করে সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, ‘তথ্যমন্ত্রীসহ সরকারের তিন মন্ত্রী ও প্রধানমন্ত্রীর একজন উপদেষ্টা সম্পাদক পরিষদের সঙ্গে আলোচনা করেছিলেন। তিন মন্ত্রীর পক্ষ থেকে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল যে, সম্পাদক পরিষদের উদ্বেগ মন্ত্রিসভার বৈঠকে তোলা হবে এবং মন্ত্রিসভার অনুমোদন পেলে এ নিয়ে আরও আলোচনা করা হবে। কিন্তু গত দুইটি মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি।’ আগামী সংসদ অধিবেশনে আইনটি সংশোধন করে গণমাধ্যমের স্বাধীনতা ও স্বাধীন সাংবাদিকতা নিশ্চিতের আহ্বান জানায় সম্পাদক পরিষদ।

সম্পাদকদের উদ্বেগের প্রেক্ষিতে সম্পাদকদের সঙ্গে এর আগে আলোচনায় বসা তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু ও আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছিলেন, মন্ত্রিসভায় আলোচনার সময় শেষ হয়ে যায়নি। সংসদে পাস হলেও আইনটি নিয়ে মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে ফের আলোচনা হবে। এ বক্তব্যের পরের প্রথম মন্ত্রিসভা বৈঠকে সোমবার তথ্যমন্ত্রী ও আইনমন্ত্রী বিষয়টি তুলে ধরেন বলে সূত্রগুলো জানায়।  

(ঢাকাটাইমস/১৫অক্টোবর/এমএম/এআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত