সামাজিক অবক্ষয়ের মূলে বিএনপি: খালিদ

দিনাজপুর প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ অক্টোবর ২০১৮, ২০:০৬

স্বাধীনতা বিরোধীদের রাজনীতি করার সুযোগ দিয়ে বিএনপি সামাজিক অবক্ষয় ঘটিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী।

সোমবার সকালে শারদীয় দুর্গা পূজা-২০১৮ উপলক্ষে জেলার বিরল উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে জি আর অনুদান বিতরণী অনুষ্ঠান ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

খালিদ বলেন, পঁচাত্তরে জাতির পিতাকে হত্যার পর জিয়াউর রহমান ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করার সুযোগ করে দিয়েছে। এভাবে ধীরে ধীরে সমাজের মধ্যে অবক্ষয়গুলো ঢুকিয়ে দেয়া হয়েছে। সমাজকে বিকৃত করা হয়েছে। ধর্মভিত্তিক সমাজ ব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়েছে। আমরা কথায় কথায় বলি ওরা হিন্দু, ওরা মুসলমান, ওরা বৌদ্ধ, ওরা খ্রিস্টান। কিন্তু আমাদের সংবিধানে এটা বলে দেয়া নেই।

 

 

আওয়ামী লীগের এ কেন্দ্রীয় বলেন, আমরা মুক্তিযুদ্ধের সময় কেউ দেখি নাই কে হিন্দু, কে মুসলমান, কে বৌদ্ধ, কে খ্রিস্টান। আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছি সবাই একসাথে। আমাদের স্লোগান ছিল একটাই, জয় বাংলা-জয় বঙ্গবন্ধু।

আমাদের এই যে মূল্যবোধ, আমাদেরকে সেই মূল্যবোধ নিয়েই দেশটাকে এগিয়ে নিতে হবে।’

‘আমাদের মুক্তিযুদ্ধে কোনো বিভেদ ছিল না, সমতা ছিল- ঐক্য ছিল। সেই আলোকে ৭২ এর সংবিধান সমতার ভিত্তিতে গঠন করা হয়েছিল। সমতাটা কিসের? সমতাটা ছিল সকল ধর্মের, সকল বর্ণের, সকল গোষ্ঠীর। সেখানে কোন ব্যবধান থাকবে না, সমঅধিকার নিয়ে সমতা ভিত্তিক একটি কল্যাণকর রাষ্ট্র হবে। ৭২ এর সংবিধানের সেটাই হচ্ছে আমাদের মূল প্রতিপাদ্য। সমতার ভিত্তিতে দেশকে এগিয়ে নেয়াই ছিল মূল লক্ষ্য। কিন্তু ৭৫ এ বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার পরে আমাদের সমতা আর থাকেনি। সেই সমতাকে ধ্বংস করে দেয়া হয়েছে।’

খালিদ বলেন, আওয়ামী লীগের লক্ষ্য সমতার ভিত্তিতে একটি কল্যাণকর রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হবে। সেই লক্ষ্য নিয়ে দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে সাথে নিয়ে আমরা লড়াইয়ে আছি। আমরা দেশ পরিচালনার যে দায়িত্ব, সেটা ঐ চেতনা বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছি এবং আমরা সফল হয়েছি। কেননা যারা এই ধরনের সাম্প্রদায়িক চিন্তা চেতনা নিয়ে দেশের মধ্যে বিভক্তি করার চেষ্টা করেছিল তাদেরকে আমরা দমন করতে পেরেছি। আমরা এখনও নির্মূল করতে পারিনি। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে তাদেরকে নির্মূল করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ভিত্তিতে একটি কল্যাণকর রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত করা। এখানে মানবতা হচ্ছে সবচেয়ে বড় কথা।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ বি এম রওশন কবীর এর সভাপতিত্বে কালিয়াগঞ্জ হাট বারোয়ারী পূজা মন্ডপের সম্পাদক প্রভাসক বিভূতি ভূষণ সরকারের সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ এর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রমা কান্ত রায়।

বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ এর সাধারণ সম্পাদক এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, সহ-সভাপতি ও পৌর  মেয়র সবুজার সিদ্দিক সাগর, অফিসার ইনচার্জ এ টি এম গোলাম রসুল, প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার রেজাউল করিম প্রমুখ।

আলোচনা সভা শেষে প্রধান অতিথি উপজেলার ৯৪ টি পূজা মণ্ডপে নগদ অর্থ বিতরণ করেন এবং বিরল কেন্দ্রীয় দূর্গা পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন করে আরতী প্রতিযোগিতার শুভ উদ্বোধন, বেতুড়া বাজার সার্বজনীন দুর্গা পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন ও গোপালপুর সার্বজনীন দুর্গা পূজা মণ্ডপ পরিদর্শন করেন।

(ঢাকাটাইমস/১৫অক্টোবর/টিএ/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত