এভাবে ঐক্যের ঘোষণা ভুল, জাফরুল্লাহর ক্ষমা প্রার্থনা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ০১:১৯ | প্রকাশিত : ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ০০:৩৩

সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদকে নিয়ে উদ্ভট বক্তব্যের পর দুঃখ প্রকাশের দুই দিন যেতে না যেতেই আবারও ক্ষমা চাইলেন বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবী জাফরুল্লাহ চৌধুরী। বিকল্পধারার সভাপতি এক কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরীকে বাদ দিয়ে ঐক্যফ্রন্টের ঘোষণা দেয়া ভুল হয়েছে জানিয়ে এই ক্ষমা চেয়েছেন তিনি।

গত ১৩ অক্টোবর বি. চৌধুরীকে বাদ দিয়েই বিএনপি, কামাল হোসেনের জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া এবং জেএসডি ও নাগরিক ঐক্য নিয়ে গঠন হয় ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট’।

সেদিনই তীব্র প্রতিক্রিয়া জানান বি. চৌধুরী। বলেন, এটি বিএনপিকে ক্ষমতায় আনার উদ্যোগ। কিন্তু রাজনীতিতে ভারসাম্য আনতে এবং স্বাধীনতাবিরোধীদেরকে বাদ দিতে যে চেষ্টা ছিল তার, সেটি হয়নি।

মাহমুদুর রহমান মান্নাকে বি চৌধুরীর ছেলে মাহী বি চৌধুরী সরাসরি বলেন, ‘আপনারা দেশবিরোধী চক্রান্তের ফাঁদে পড়েছেন।’ মান্নাও বলেন, ঐক্যফ্রন্টের ঘোষণাপত্র পাঠ করার আগে তার আরও ভাবা উচিত ছিল।

এই আলোচনার মধ্যেই সোমবার রাতে বি চৌধুরীর বারিধারার বাসায় যান এই ঐক্যের আলোচনায় মধ্যস্ততা করা জাফরুল্লাহ চৌধুরী। বৈঠক শেষে গণমাধ্যমকর্মীদেরকে তিনি বলেন, ‘আমরা সবাইকে নিয়ে কাজ করতে চাই। কেউ বাদ দেওয়া হবে না। ওইদিন আমাদের ভুল হয়েছে। এই জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করছি।’

এর আগে রাত সাড়ে ৯টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত বি. চৌধুরীর সাথে বৈঠক করেন জাফরুল্লাহ। এ সময় বিকল্পধারার মহাসচিব আবদুল  মান্নানও উপস্থিত ছিলেন।

এক প্রশ্নের জবাবে জাফরুল্লাহ  বলেন, ‘আগে যারা ছিল সবাইকে নিয়ে কাজ করতে চাই। সাবেক রাষ্ট্রপতি বি. চৌধুরীকে বাদ দিয়ে কিছু যায় নাকি? আমি সবাইকে নিয়ে ঐক্য করতে চাই।’

জাফরুল্লাহ চলে যাওয়ার পর মাহী বি. চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, ‘ডাক্তার জাফরুল্লাহ বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট বি. চৌধুরী ও দলের মহাসচিব মেজর (অব) মান্নানের সঙ্গে কথা বলেছেন। আমিও কিছুক্ষণ ছিলাম সেখানে। ১৩ অক্টোবরের ঘটনার জন্য ডা. জাফরুল্লাহ দুঃখ প্রকাশ করে বলেছেন যে, বি চৌধুরীকে আমন্ত্রণ জানিয়ে ড. কামাল হোসেন বাসায় থাকেননি, এটা সঠিক হয়নি। এই কথাটিই তিনি বলতে এসেছেন।’ 

‘আমারা ডা. জাফরুল্লাকে বলেছি যে- আমাদের মতামত স্পষ্ট; স্বাধীনতা বিরোধীদের সঙ্গে কোনো ঐক্যে যাবো না আমরা। এছাড়া যদি ক্ষমতার ভারসাম্যই না আসে, নিদিষ্টভাবে একটি দলকে ক্ষমতায় বসানোর  জন্যই যদি ঐক্য হয় সেটা দেশকে স্বেচ্ছাচার মুক্ত করবে না। সুতরাং আমরা আমাদের অবস্থান থেকে সরতে পারবো না।’

‘আমরা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে বলেছি- আপনারা স্বাধীনতা বিরোধীদের ছাড়লে, বিএনপিকে স্বাধীনতা বিরোধীদের হাত থেকে বের করে আনতে পারলে এবং ভারসাম্যের রাজনীতি দিতে পারলে আপনাদের জন্য আমাদের দরজা সব সময় খোলা থাকবে।’

জাফরুল্লাহ কী বলেছেন- এমন প্রশ্নে মাহী বলেন, ‘তিনি বলেছেন- ওইদিন (১৩ অক্টোবর) আমাদের ভুল হয়েছে। এর জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করছি।’

-আপনারা কী বলেছেন?

-‘তখন আমরা বলেছি- এই ভুলের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করার কিছু নেই। তবে আমরা জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সাফল্য কামনা করি। ড. কামাল হোসেনের সাফল্য কামনা করি। আপনারা নিজেদের মত চলতে থাকুন। আমরা আমাদের মত চলব।’

বিকল্পধারা একঘরে হয়ে যাচ্ছে- বি. চৌধুরীকে এমন কথাও বলেন জাফরুল্লাহ- তথ্য মাহীর।

-আপনারা জবাবে কী বলেছেন?

-‘আমরা বলেছি আমরা এক ঘরে হয়েই থাকতে চাই। বৃহত্তর অট্রলিকার বাইরে আমরা ছোট্ট একটি কুড়ে ঘর বানাব। সেই ঘরে সত্যের, মুক্তিযুদ্ধের ও শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের রাজনীতি থাকবে। আমরা আমাদের অবস্থান থেকে এক ইঞ্চিও নড়ব না।’

-ঐক্যফ্রন্টে না যাওয়া বিকল্পধারা কি আওয়ামী লীগের দিকে ঝুঁকবে?

-‘আজকের দুঃশাসনের সরকারের বিরুদ্ধে আমাদের লড়াই। বিকল্পধারা জন্মের পর থেকে কোনো জোটে যেতে পারেনি। সুতরাং এই ধরনের কোনো সম্ভাবনা নেই। এটা গুঞ্জন ছাড়া আর কিছু নয়’- বলেন মাহী।

ঢাকাটাইমস/১৬অক্টোবর/টিএ/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত