ফি কমানোর দাবিতে ইবি শিক্ষার্থীদের ক্লাস বর্জন

ইবি প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ১৮:৪৪

বিভিন্ন খাতে ফি কমানোর দাবিতে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) সাধারণ শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে মানববন্ধন করেছেন।

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ক্যাম্পাসের প্রশাসন ভবনের সামনে এ কর্মসূচি পালন করেন বিভিন্ন বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের শিক্ষার্থীরা।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষ থেকে মানবিক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত বিভাগগুলোতে ১১ হাজার ৮১৫ টাকা, ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদভুক্ত বিভাগগুলোতে ১৩ হাজার ৩১৫টাকা, ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদভুক্ত বিভাগগুলোতে ১২ হাজার ৪১৫টাকা ভর্তি ফি নির্ধারণ করে ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন করে কর্তৃপক্ষ। যা আগের তুলনায় তিনগুণ বেশী ছিল।

এছাড়াও চলতি বছরের ভর্তি আবেদনে ইউনিট প্রতি বিভাগের সংখ্যা হিসেব করে একশত টাকা করে এবং এর সাথে অতিরিক্ত দুই শত টাকা ধার্য করে ভর্তি আবেদন গ্রহণ করে কর্তৃপক্ষ। ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ভর্তির সময় ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে ইবি শাখা ছাত্রমৈত্রী আন্দোলন করেছিল।

শিক্ষার্থীদের দাবি, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ভর্তি পরীক্ষার ফরমের মূল্য, ভর্তি ফি, হল ফি, সেমিস্টার ফি এবং পরিবহন ফি বৃদ্ধিসহ নামে বেনামে বিভিন্ন খাত তৈরি করে ফি ধার্য করেছে। ফি প্রদানের বিভিন্ন খাত তৈরি এবং ফি কমানোর দাবি জানায় শিক্ষার্থীরা। এ সময় শিক্ষার্থীরা ‘ইবি কি পাবলিক না প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়?’ ‘অতিরিক্ত ভর্তি ফি কমাতে হবে’, ‘অতিরিক্ত ফরমের মূল্য বৃদ্ধি চলবে না’, ‘শিক্ষা নিয়ে বাণিজ্য বন্ধ করো,’ সহ বিভিন্ন প্রতিবাদ সম্বলিত ফেস্টুন প্রদর্শন করে শ্লোগান দেন।

বিভিন্ন খাতে ফি কমানোর প্রতিবাদে মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনের সামনে মানববন্ধন শুরু করে। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ভবনে প্রতিবাদ মিছিল নিয়ে যায়।

উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন, ‘গত বছর দেশের সকল বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে সংঙ্গতি রেখে ফি বৃদ্ধি করা হয়েছিল। ওই ফি দিয়েই তারা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছে। কিন্তু আজ কেন ফি বৃদ্ধি নিয়ে তারা আন্দোলন করবে? এ অবস্থায় আমি বিস্ময় প্রকাশ করছি।’

(ঢাকাটাইমস/১৬অক্টোবর/প্রতিনিধি/ইএস)

সংবাদটি শেয়ার করুন

শিক্ষা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত