লামিয়ার চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন বিএমপি কমিশনার

বরিশাল ব্যুরো, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ২১:৩৭
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন নির্যাতিত গৃহকর্মী লামিয়া আক্তার মরিয়মকে দেখতে যান মহানগর পুলিশ কমিশনার মোশারেফ হোসেন

বরিশালে নির্যাতিত গৃহকর্মী লামিয়া আক্তার মরিয়মের চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন মহানগর পুলিশ কমিশনার মোশারেফ হোসেন। সেই সঙ্গে অভিযুক্ত দম্পতিকে আইনের আওতায় নিয়ে আসার আশ্বাস দেন তিনি।

মঙ্গলবার দুপুরে বরিশালের শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন লামিয়াকে দেখতে গিয়ে এই প্রতিশ্রুতি দেন এই পুলিশ কর্মকর্তা।

অভিযুক্ত আশরাফুল ইসলাম চৌধুরীকে দ্রুত গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে জানিয়ে মোশারেফ হোসেন বলেন, ‘শিশু নির্যাতনকারীদের কোন প্রকার ছাড় দেওয়া হবে না। এই ধরনের নির্যাতনের ঘটনা আমাদেরকে জানান। আমরা প্রতিটি ঘটনায় ব্যবস্থা নেব।

লামিয়া গৌরনদী উপজেলার বাটাজোড় ইউনিযনের রিকশা চালক ইকবাল সরদারের মেয়ে। ইকবাল সরদারের একাদিক বিয়ে থাকায় তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে যান। আর পরিবারের ভাঙ্গনে জীবন অনিশ্চিত হয়ে যায় লামিয়ার জীবন।

অতি কষ্টে জীবন চলার এ পর্যায়ে ইকবাল সরদার লামিয়াকে মাস ছয় আগে কাশিপুর আনসার ক্যাম্পের পিছনে মদীনা সড়কের বাসিন্দা আশরাফুল ইসলাম চৌধুরী ও কাশীপুর কমিউনিটি ক্লিনিকের কর্মী শারমিন আক্তার আঁখির বাসায় কাজে দেন। শুরুতে কয়েকদিন ভাল আচরণ করলেও পরে শুরু হয় অত্যাচার।

নির্যাতনে আহত লামিয়ার অবস্থা দেখে সোমবার এক প্রতিবেশী বরিশাল মহানগর পুলিশের ফেসবুক পেইজে অভিযোগ করেন। বিষয়টি নজরে আসে পেইজের দায়িত্বে থাকা পুলিম সদস্য ওবায়দুল হকের। ওবায়দুল ঘটনাটি পুলিশ কমিশনার মোশারেফ হোসেনকে জানালে তিনি নগর গোয়েন্দা পুলিশকে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেন করেন।

তারপরই লামিয়ার ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিচার চেয়ে বিভিন্ন ধরনের পোস্ট দিচ্ছে ব্যবহারকারীরা। ওদিকে লামিয়ার সেবায় চিকিৎসকের পাশাপাশি পুলিশ সদস্যরাও রয়েছেন।

ঢাকাটাইমস/১৭অক্টোবর/প্রতিনিধি/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত