মাংস খেকো মাছের পুরাতন প্রজাতির সন্ধান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ অক্টোবর ২০১৮, ১২:৫৯

মাংশ খেকো মাছের পুরাতন প্রজাতির সন্ধান পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। ১৫ কোটি বছর পূর্বে জুরাসিক যুগে এটি সাগরের নির্দিষ্ট এলাকায় রাজত্ব করেছে। মাংশের পাশাপাশি অন্য মাছের পাখনাও খেয়ে ফেলত শক্ত দাঁতওয়ালা এই মাছ। এটিকে মাংস খেকো মাছের শুরুর দিকের প্রজাতি বলে মনে করছেন বিজ্ঞানীরা।

দক্ষিণ জার্মানির আশেপাশে ছিল এদের বাস। বিজ্ঞানীরা এই মাছের শিকার হওয়া অন্য মাছের দেহ এবং পাখনা খুঁজে পেয়েছেন।

মাংস খেকো এই মাছের সম্পূর্ণ ফসিলের গবেষণা বৃহস্পতিবার ‘কারেন্ট বায়োলজি’ জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। ২০১৬ সাল থেকে জার্মানির ইচস্ট্যাটের জুরা মিউজিয়ামে একদল বিজ্ঞানী এ গবেষণা করেছেন। খবর সিএনএনের।

বিজ্ঞানীরা এই মাছের নাম দিয়েছেন ‘পিরানহেমসডন পিনাটোমাস’। যেটি আসলে পিরানহা ও ডানা কাটা মাছের সংমিশ্রণ।

জুরা মিউজিয়ামের পরিচালক মার্টিন কোলব্ল-এবার্ট, আমরা পিরানহার মত দাঁত দেখে বিস্মিত হয়েছিলাম। এই ধরনের মাছগুলো বিখ্যাত ছিলো তাদের শক্ত দাঁতের জন্য।

তারা শক্তি বস্তু খাওয়ার জন্য তাদের এই দাঁত ব্যবহার করতো। এসব শক্তি শিলা ও কাটাযুক্ত খাবার তাদের পেটের মধ্যে পাওয়া গিয়েছে। 

কিন্তু এই মাছের দাঁতের নকশা অন্য সবার চেয়ে আলাদা। যা আক্রমণ করার জন্যই তৈরি করা হয়েছে। গবেষকরা জানিয়েছেন, তাদের দাঁত শিকারিকে চূর্ণ করে দেয়ার জন্য যথেষ্ট। 

এই মাছগুলো মাংস খাওয়ার জন্য তাদের দাঁত ব্যবহার করত। এছাড়া অন্য মাছের পাখনা ছিঁড়ে খেত। ফলে যে মাছের পাখনা ছিঁড়ে খেত সেই মাছ আস্তে আস্তে মারা যেত।

ছোট ডাইনোসরদের যুগের মাংশ খেকো মাছের এই প্রজাতির সন্ধান আরো বেশ কিছু গবেষণার পথ খুলে দেবে বলে বিশ্বাস বিজ্ঞানীদের।

ঢাকাটাইমস/১৯অক্টোবর/একে

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত