শপিংমলের ছাদে আটকে রেখে ১০ দিন ধরে গণধর্ষণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ অক্টোবর ২০১৮, ২০:৩১

বন্ধ একটি শপিংমলের ছাদের কোণায় দাঁড়িয়ে সাহায্যের জন্য চিৎকার করছেন বছর পঁচিশের এক তরুণী। সেই চিৎকার শুনে নিচের রাস্তায় ততক্ষণে উৎসুক জনতার ভিড় জমে গেছে। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই খবর যায় পুলিশে। শেষে তারা ওই তরুণীকে উদ্ধার করে।

উদ্ধারের পর পুলিশ বাঙালি ওই তরুণীর কাছ থেকে জানতে পারে, তাকে শপিংমলে একটি ঘরে আটকে রেখে দিনের পর দিন গণধর্ষণ করা হয়েছে।

আনন্দবাজার জানায়, ঘটনাস্থল ভারতের ওডিশা রাজ্যের পুরি জেলার কোনার্ক। উদ্ধার হওয়া ওই তরুণী কলকাতার বাসিন্দা। টানা ১০ দিন ধরে তাকে ওই কোনার্কের ওই শপিংমলের ছাদের একটি ঘরে আটকে রেখে গণধর্ষণ করা হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেছেন। আপাতত পুরি জেলা হাসপাতালে ভর্তি ওই তরুণী। এই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তবে মূল অভিযুক্তরা এখনও ফেরার।

পুলিশের কাছে অভিযোগে ওই তরুণী জানিয়েছেন, কাজল নামে তার পরিচিত এক নারী কাজের কথা বলে তাকে পুরিতে নিয়ে আসেন। সেখানেই সুভাষ বেহরা নামে কাজলের এক বন্ধুর সঙ্গে ওই তরুণীর পরিচয় হয়। এরপর কাজল এবং সুভাষ তাকে দেহ ব্যবসায় নামানোর চেষ্টা করে বলে অভিযোগ। কিন্তু তরুণী রাজি না হওয়ায় ওই শপিং কমপ্লেক্সের একটি ঘরে তাকে আটকে রেখে গণধর্ষণ করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত