সুষ্ঠু নির্বাচন চাই: এরশাদ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২০ অক্টোবর ২০১৮, ১৭:২৮ | প্রকাশিত : ২০ অক্টোবর ২০১৮, ১৩:১৪

জাতীয় পার্টি সবসময় নির্বাচন করেছে উল্লেখ করে দলটির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ বলেছেন, ‘আজও আমরা নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত। তবে সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। অবাধ নির্বাচন চাই। নিশ্চয়তা চাই, আমরা যারা সংসদে আছি সকলের সমন্বয়ে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করতে হবে।’

শনিবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় পার্টির মহাসমাবেশ থেকে এই ঘোষণা দেন এরশাদ। বেলা পৌনে ১১টার দিকে সমাবেশ আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হয়।

মহাসমাবেশ থেকে আগামী নির্বাচন, জোট গঠনসহ রাজনৈতিক গুরুত্বপূর্ণ বার্তা দেয়ার কথা ছিল সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদের।

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনশ আসনেই প্রার্থী দেয়ার ঘোষণা দিয়ে এরশাদ বলেন, ‘আমরা নির্বাচনের প্রস্তুতি গ্রহণ করছি। এখন থেকেই যাত্রা শুরু। আমরা তিনশ আসনে নির্বাচন করতে চাই।’ 

‘তিনশ আসনে মনোনয়ন দেব। নির্বাচন যারা করতে চাও, এগিয়ে আসো। এ মাসের মধ্যেই পার্লামেন্টারি বোর্ড গঠন করা হবে। তৃণমূলের সমর্থনে মনোনয়ন দেওয়া হবে।’

জনগণের উন্নয়নের জন্য জাতীয় পার্টি কাজ করবে উল্লেখ করে এরশাদ বলেন, ‘শেষ কথা, নির্বাচনের জন্য অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি করতে হবে। আমি নতুন করে ১৮ দফা কর্মসূচি গ্রহণ করেছি।’

‘আমরা নির্বাচন পদ্ধতি পরিবর্তন করতে চাই। বিচার বিভাগের স্বাধীনতা চাই। শিক্ষা পদ্ধতি সংস্কার চাই। স্বাস্থ্যসেবার সম্প্রসারণ চাই। শান্তির রাজনীতি চাই। সড়ক নিরাপত্তা চাই।’

বিশৃঙ্খলায় শুরু মহাসমাবেশ

দেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে সকালে দলে দলে যোগ দিতে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আসতে শুরু করে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা। এদের মধ্যে একটি অংশকে সঙ্গে আনা প্রতীক লাঙ্গল ও সমাবেশস্থলে থাকা চেয়ার ছোড়াছুড়িতে বিশৃঙ্খল অবস্থা দেখা দেয়। তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। বেশ কয়েকজন আহত হন। এর মধ্যে একজন মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হলে তাকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

সমাবেশে খেলাফত মজলিশের নেতাকর্মীরা

জাতীয় পার্টির নেতৃত্বাধীন সম্মিলিত জাতীয় জোটের অন্যতম শরিক দল খেলাফত মজলিসের নেতাকর্মীরাও যোগ দিয়েছেন এই মহাসমাবেশে। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে খেলাফত মজলিসের নেতাকর্মীরা মিছিল নিয়ে যোগ দেয়। এসময় তাদের সঙ্গে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের বাকবিতণ্ডা হয়।

এছাড়া মহাসমাবেশ ঘিরে আয়োজিত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মঞ্চও দখল করে নেন খেলাফত মজলিসের নেতাকর্মীরা। মঞ্চের সামনের অংশও তারা দখল করে রাখেন। পরে পুলিশ এসে তাদের সরিয়ে দেয়।

সমাবেশস্থলে উপস্থিত হয়েছেন সংসদের বিরোধী দলীয় নেতা ও দলের সিনিয়র কো-চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ, পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, সমবায় প্রতিমন্ত্রী মশিউর রহমান রাঙ্গা, কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার, শ্রম প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নুসহ দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং দলীয় সংসদ সদস্যরা।

ঢাকাটাইমস/২০অক্টোবর/ডিএম

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত