ড. কামালকে নিয়ে সংসদে আলোচনার দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২১ অক্টোবর ২০১৮, ২২:৫০ | প্রকাশিত : ২১ অক্টোবর ২০১৮, ২২:২৬
ফাইল ছবি: জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট

জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতা ড. কামাল হোসেন এবং তার নতুন জোট  নিয়ে সংসদে কথা বলতে চেয়েছেন সরকারি দলের সদস্যরা। যদিও স্পিকার এ নিয়ে কোনো মন্তব্য করেননি।

রবিবার দশম সংসদের সর্বশেষ অধিবেশনে আওয়ামী লীগের প্রবীণ রাজনীতিক, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ এই আগ্রহের কথা জানান। তিনি স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছে সময়ও চান।

অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে তোফায়েল বলেন, ‘একটা অশুভ ঘটনা হতে চলেছে। এই ব্যাপারে বিস্তারিত আলোচনা করতে চাই। তথ্য উপাত্ত উপস্থাপন করতে চাই।’

খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচনের দাবিতে গত ১৩ অক্টোবর বিএনপি, নাগরিক ঐক্য এবং জেএসডিকে নিয়ে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠন করেন ড. কামাল হোসেন।

দলের সাবেক নেতার এই উদ্যোগের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কামাল হোসেনকে বাহবাও দিয়েছেন। বলেছেন, তিনি ২১ আগস্টের খুনিদেরকে সঙ্গে নিয়ে জোট করেছেন।

একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলা মামলায় দণ্ডিত তারেক রহমানের বিএনপির সঙ্গে জোট করায় নিয়েও কামালের সমালোচনা করেন তোফায়েল। বলেন, ‘একটা দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন হিসেবে যাকে অভিহিত করা হয়, তার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়। তার সাথে কী করে ঐক্য করে!’

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘অনেকেই এই বিষয়ে বলতে চায়। এই বিষয়ে আমরা বিস্তারিত আলোচনা করব। হোমওয়ার্ক করব। তথ্য নিয়ে আসব। অনুমতি দিলে একটা দিন ভালো আলোচনা করব। আমাদের কিছু কথা দেশবাসীকে জানাতে হবে।’

বিএনএফের সংসদ সদস্য আবুল কালাম আজাদও ড. কামালের সমালোচনা করেন। বলেন, ‘ড. কামাল হোসেন সুযোগ থাকা সত্ত্বেও আমাদের সংবিধানের মুখবন্ধে বঙ্গবন্ধুর নামটি অন্তর্ভুক্ত করলেন না। এই সংবিধানের মুখবন্ধে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর নাম নেই কেন, এতদিন পরে তা বোঝা গেল। যারা বঙ্গবন্ধুকে জাতির জনক স্বীকার করেন না, জিয়াউর রহমানকে স্বাধীনতার ঘোষক বলেন, এতদিন পরে কামাল হোসেন তাদের সঙ্গে যুক্ত হলেন। এতদিন পরে প্রমাণিত হল তিনি বঙ্গবন্ধুর লোক ছিলেন না। তিনি বরাবরই পাকিস্তানপন্থি ছিলেন।’

ঢাকাটাইমস/২১আগস্ট/টিএ/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত