আড়াইহাজারে গুলিবিদ্ধ চার লাশের পরিচয় মিলেছে

না.গঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ২৩ অক্টোবর ২০১৮, ০০:৩৩

নারায়ণগঞ্জ জেলার আড়াইহাজারে গুলিবিদ্ধ চার লাশের পরিচয় পাওয়া গেছে। লাশ নিহতদের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে আড়াইহাজার থানা পুলিশ।

আড়াইহাজার থানার ওসি এমএ হক জানান, সোমবার ৪ জনের পরিচয় শনাক্ত করা হয়। পরে নারায়ণগঞ্জ মর্গ থেকে তিনজনের লাশ পরিবারের কাছ হস্তান্তর করা হয়েছে। 

নিহতরা হলেন- পাবনা জেলার সদর আতাইকুলা থানাধীন ধর্মগ্রাম এলাকার লোকমানের ছেলে জহিরুল (৩০), খাইরুল সরদারের ছেলে সবুজ সরদার (১৭), একই এলাকার জামালউদ্দিন প্রামানিকের ছেলে ফারুক প্রামানিক (৩৫) এবং আগের দিন শনাক্ত হওয়া রাজধানীর ঢাকার রামপুরার মনসুর মোল্লার ছেলে বাস চালক লুৎফর মোল্লা (৩৬)।

এর আগে নিহতদের আসামি করে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। যার মধ্যে একটি অস্ত্র আইনে ও অপরটি হত্যা মামলা। নিহতদের অজ্ঞাত পরিচিত হিসেবে মামলায় উল্লেখ করা হয়।

আড়াইহাজার থানা পুলিশ জানিয়েছে, ২১অক্টোবর রবিবার রাতে আড়াইহাজার থানা পুলিশের এসআই রফিউদ্দৌলা বাদী হয়ে মামলা দুটি দায়ের করেন।
মামলায় উল্ল্যেখ করা হয়, রবিবার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাঁচরুখী ফকির বাড়ির সামনে দুইদল অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গোলাগুলি করছেন। এমন সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে চার ব্যক্তির লাশ পড়ে  থাকতে দেখতে পেয়ে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবহিত করেন। ঘটনাস্থল থেকে দুটি পিস্তল ও একটি প্রাইভেটকার উদ্ধার করা হয়েছে।

আগের দিন রবিবার নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতাল মর্গে নিহত বাস চালক লুৎফর মোল্লার স্ত্রী রেশমা আক্তার টি-শার্ট দেখে লাশ শনাক্ত করেন। সকালে টেলিভিশনে আড়াইহাজারে ৪ জনের লাশ উদ্ধারের খবর পেয়ে নারায়ণগঞ্জ হাসপাতাল মর্গে ছুটে আসেন তিনি। 

নিহতের স্ত্রী রেশমা আক্তার জানান, ১৯ অক্টোবর শুক্রবার বিকেলের দিকে তার স্বামী লুৎফর বাসা থেকে বের হন। সর্বশেষ ওইদিন দিবাগত রাত ১টার দিকে স্বামী লুৎফরের সঙ্গে মোবাইলে কথা হয় তার। এরপর থেকে তিনি লুৎফরের মোবাইল ফোন বন্ধ পান। তাদের এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। ছেলে রিশাদ ৮ম শ্রেণি ও মেয়ে লিজা ৪র্থ শ্রেণিতে লেখাপড়া করে।

নিহত ফারুক প্রামাণিকের বাবা জামালউদ্দীন প্রামাণিক বলেন, ১৫ বছর যাবত নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের গাউছিয়া এলাকায় বাস চালিয়ে আসছিল ফারুক। গত সোমবার ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ফারুকসহ ৪জনকে তুলে নিয়ে যায়। যার মধ্যে তিনজনের লাশ আড়াইহাজারে পাওয়া গেল। তারা হলেন সবুজ সরদার, ফারুক প্রামাণিক ও জহিরুল ইসলাম।
নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. আসাদুজ্জামান জানান, প্রত্যেকটি লাশের মাথার পেছনের দিকে গুলি করা হয়েছে। বিদ্ধ হওয়া গুলিগুলো বের করা হয়েছে। এছাড়াও লাশের মাথার পেছনের অংশ মুখ থেতলানো রয়েছে। ধারণা করা যাচ্ছে শনিবার দিবাগত মধ্যরাতের পর তাদের মৃত্যু হয়েছে।

ঢাকাটাইমস/২৩অক্টোবর/প্রতিনিধি/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত