শামসুর রাহমানের জন্মদিনে বিশেষ ডুডল

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০১৮, ১০:৩৬ | প্রকাশিত : ২৩ অক্টোবর ২০১৮, ১০:২২

নাগরিক কবি শামসুর রাহমানের ৮৯তম জন্মদিনে বিশেষ ডুডল প্রকাশ করেছে গুগল। ওই ডুডলে ক্লিক করে শামসুর রাহমানের সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য জানার সুযোগ রয়েছে। 

বিশেষ এই ডুডলে দেখা যাচ্ছে টেবিলে বসে লিখছেন কবি। পেছনে উড়ছে সাদা মেঘ। ডুডলের গুগল লেখাটি লাল রঙে সজ্জিত। পেছনের ফ্রেমটি সবুজে মোড়ানো। 

কবির জন্মদিন উপলক্ষে বাংলা একাডেমি, শিল্পকলা একাডেমিসহ বিভিন্ন সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান নানা কর্মসূচির আয়োজন করেছে।

১৯২৯ সালের ২৩ অক্টোবর পুরনো ঢাকার মাহুতটুলিতে কবি জন্মগ্রহণ একাধারে কবি, সাংবাদিক, গীতিকার ও কলামিস্ট শামসুর রাহমান।  ২০০৬ সালের ১৭ আগস্ট চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি ঢাকায় মারা যান। 

কবি শামসুর রাহমানের বাবা মুখলেসুর রহমান চৌধুরী, মা আমেনা বেগম। কবি শামসুর রাহমান পড়াশুনা করেছেন রাজধানীর পোগোজ স্কুলে। ঢাকা নগরেই তাঁর বেড়ে ওঠা। 

জীবনের সত্য-সুন্দরকে তুলে ধরার পাশাপাশি বাঙালির সব আন্দোলন-সংগ্রামের গৌরবদীপ্ত অধ্যায় ফিরে ফিরে এসেছে তাঁর কবিতায়। তাঁর প্রথম কাব্যগ্রন্থ প্রথম গান দ্বিতীয় মৃত্যুর আগে প্রকাশিত হয়েছিল ১৯৬০ সালে। 

এর পর ‘ষাট দশকে প্রকাশিত বইগুলো হচ্ছে রুদ্র করোটিতে, বিধ্বস্ত নীলিমা, নিরালোকে বসতি, নিজ বাসভূমে, ‘বন্দি শিবির থেকে’, মাতাল ঋতিকসহ মৃত্যুর আগ পর্যন্ত কবির ৬০টি কবিতার বই প্রকাশ পায়। 

এ ছাড়া ৮টি শিশুতোষ ১১টি, গল্পগ্রন্থ ১টি, দুটি উপন্যাস-অক্টোপাস ও অদ্ভুত আঁধার, নাটক ও কবিতা সমগ্র, অনুবাদগ্রন্থ ৯টি, নির্বাচিত কলাম, নির্বাচিত কবিতার চারখন্ডসহ কবির বিভিন্ন বিষয়ে প্রকাশিত বইয়ের সংখ্যা শতাধিক। 

তার কবিতায় বাঙালি জাতির স্বাধীনতা প্রাপ্তির চেতনার দীপ্ত উচ্চারিত হলেও কবিতা ও সাংবাদিকতায় মৌলবাদ বিরোধীতায় ছিলেন সোচ্চার। ধর্মান্ধতাকে কবিতার মধ্যদিয়ে আজীবন প্রচন্ডভাবে ঘৃণা করেছেন।

আজও সকল বয়সের মানুষকে উজ্জীবিত করে। সর্বোপরি কবিতা রচনায় স্বাধীনতার কণ্ঠকে ধারণ করেন। এ কারণেই বাংলা কবিতায় তাকে স্বাধীনতার কবি বলা হয়। 

বহুমুখী প্রতিভার এ অধিকারী শামসুর রাহমান সাহিত্যে অবদানের জন্য একুশের পদক, বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার, আদমজী পুরস্কার, কলকাতা থেকে আনন্দ পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরকার লাভ করেন।

বাংলা একাডেমি কবি শামসুর রাহমানের ৮৯তম জন্মদিন পালন করবে। বুধবার বিকাল তিনটায় কবির জীবন ও কর্মের ওপর একক বক্তৃতা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে। এতে বক্তব্য রাখবেন শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক রফিকউল্লাহ খান। একাডেমির কবি শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষে এই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন কবি আসাদ চৌধুরী।  

শামসুর রাহমান স্মৃতি পরিষদের উদ্যোগে বিকাল সাড়ে পাঁচটায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের সবুজ চত্বরে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এর আগে বিকাল চারটায় স্মৃতি পরিষদের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন কবি মুহাম্মদ সামাদ। এ ছাড়া সাংস্কৃতিক সংগঠন শিল্পিত বেলা ১১টায় জাতীয় জাদুঘরের কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তনে ‘স্মৃতির আবগাহনে কবি তুমি চিরঞ্জীব’ শিরোনামের আলোচনা ও কবিতা পাঠের আয়োজন করেছে।

ঢাকাটাইমস/২৩অক্টোবর/ওআর/এজেড)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত