ড. কামাল ভীতু, তাকে দিয়ে কিছু হবে না: জাফরুল্লাহ ও মইনুল

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ২৪ অক্টোবর ২০১৮, ০০:২০ | প্রকাশিত : ২৪ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০৯

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ড. কামাল হোসেনকে ভীতু বলে মনে করেন ঐক্যফ্রন্টের অন্য দুই নেতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী ও নারী সাংবাদিককে কটূক্তির মামলায় কারাবন্দি নেতা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন। তারা বলেছেন ‘ড কামাল কাওয়ার্ড, তাকে দিয়ে কিছু হবে না।’

মঙ্গলবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফাঁস হওয়া এক টেলিফোন আলাপে এ চিত্র উঠে এসেছে।

১ মিনিট ৪৮ সেকেন্ডের ফোনালাপটির প্রথম অংশে ব্যারিস্টার মইনুল কথা বলেছেন, ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে। পরবর্তী অংশটুকুতে জাফরুল্লাহ ও মইনুলের ফোনালাপ শুনতে পাওয়া যায়। ড. কামালের সঙ্গে আলাপকালে তাকে হয়রানি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন। এ বিষয়ে ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে উদ্বেগ প্রকাশ করতে কামালকে অনুরোধ করেন মইনুল। কিন্তু ড. কামাল তার অনুরোধে সাঁড়া না দিলে নালিশ করেন ফ্রন্টের আরেক নেতা জাফরুল্লার কাছে। পরে এই দুই নেতাই বলেন, ‘ড. কামাল ভীতু। তার সাহস নেই। তাকে দিয়ে কিছু হবে না’।

ফোনালাপের প্রথম অংশ

মইনুল: কামাল ভাই আমার মনে হয় আপনি একটা স্টেটমেন্ট ইস্যু করতে পারেন কি না। আমাদের হ্যারাজ করা হচ্ছে। আমাদের ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের হ্যারাজ করা হচ্ছে। আজকে ঐক্যফ্রন্টের পক্ষ থেকে আমার মনে হয় একটা রিয়াকশন দেয়া উচিত।

ড. কামাল: ঐক্যফ্রন্টকে এই পলিটিকসের মধ্যে আনতে চাচ্ছি না। ঐক্যফ্রন্টের কাজ শুধুই ঐক্যের।

মইনুল: তাহলে আপনি থাকেন কামাল ভাই। আই গো, আই অ্যাম নট ইন দ্য ফ্রন্ট।

এ ঘটনার পরে ঐক্যফ্রন্টের আরেক নেতা জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে ফোন করেন মইনুল। সেখানে জাফরুল্লাহর কাছে ড. কামালের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন তিনি।

ফোনালাপের দ্বিতীয় অংশ

মইনুল: আমি বললাম যে, দেখেন ড. কামাল, আমাকে আঘাত করে যে মামলা করতে গেছে, হ্যারাজ করতেছে। আমি মনে করি যে, আপনার পক্ষ থেকে একটা স্টেটমেন্ট দেওয়া উচিত। আমাদের মধ্যে একটা গণ্ডগোল তৈরী করার চেষ্টা চলতেছে। সে বলে কি জানো, ? ‘আমি (ড. কামাল) এই বিষয়টাকে আমি ঐক্য প্রত্রিয়ার মধ্যে আনতে চাই না।

জাফরুল্লাহ: ওরাতো এটাই যাচ্ছে। সবাই চাচ্ছে তোমাকে আলাদা করতে, তোমাকে বের করতে।  

মইনুল: আমিও বলেছি, আমি আপনার সাথে নেই তাহলে।

জাফরুল্লাহ: তুমি চুপ করে থাকো একটু।

মইনুল: না আমি চুপ থাকবো না। কাল আমাকে এ্যারেস্ট করে নিয়ে যাবে। তুমি চেয়ে থাকবা। এটা কীসের ঐক্যফ্রন্ট। আমি আমার নিজের ঐক্যফ্রন্টে থাকবো। তার ঐক্যফ্রন্টে থাকব না। দেখি তার ঐক্যফ্রন্টে কয়টা  থাকে?

জাফরুল্লাহ: আমরা যদি এই সময়ে একে অপরের পাশে না দাঁড়াই..

মইনুল: হ্যাঁ , আমি শুধু তাকে বললাম, এটা বলেন, যেভা্বে মইনুল হোসেনকে একতরফাভোবে হ্যারাজ করা হচ্ছে, মামলা করা হচ্ছে। তাতে আমরা উদ্বিগ্ন ফিল করছি।

জাফরুল্লাহ: হ্যাঁ ..উদ্বিগ্ন

মইনুল: সে বলে যে, আমি ঐক্যফ্রন্টের মধ্যে এটা আনতে চাই না। তাহলে কীসের ঐক্যফ্রন্ট? উইদাউট মইনুল হোসেন-কীসের ঐক্যফ্রন্ট?

জাফরুল্লাহ: এটা খুবই খারাপ কথা।

মইনুল: সেতো একটা কাওয়ার্ড। কোনও কাজের না।এই ঐক্যফ্রন্ট দিয়ে কোন লাভ হবে না আমাদের। আমার ঐক্যফ্রন্টে আমরা থাকবো।

জাফরুল্লাহ: কওয়ার্ড। কাওয়ার্ড, কাওয়ার্ড

সম্প্রতি ঐক্যফ্রন্ট গঠনের পরে টেলিভিশন টকশোতে নারী সাংবাদিকের সঙ্গে কটুক্তি করার ঘটনার পর থেকে ব্যারিস্টার মইনুলকে নিয়ে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় চলছে দেশজুড়ে। এই ঘটনায় করা মামলায় সোমবার রাতে আ স ম আব্দুর রবের উত্তরার বাসা থেকে গ্রেপ্তার হন মইনুল। কারাবন্দি হওয়ার পর মইনুল ও রব মজুমদার নামে এক সাংবাদিকের ফোনালাপ ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে। ওই ফোনালাপে মইনুল বলেন, ‘তারেক রহমানের নেতৃত্ব ধ্বংস করতেই আমরা ড. কামাল হোসেনকে এনেছি।’ এ ঘটনার পরের দিনই আবার নতুন এ টেলিফোনালাপটি ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

ঢাকাটাইমস/২৩অক্টোবর/আরকে/ইএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত