সুনামগঞ্জে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত অর্ধশতাধিক

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৬ নভেম্বর ২০১৮, ২২:২৫

সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার নদীর দখলকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষে অর্ধশতাধিক লোকজন আহত হয়েছেন। গুরুতর ১২ জনকে ভর্তি করা হয়েছে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। মঙ্গলবার বিকালে উপজেলার সিংচাপইড় ইউনিয়নের খাসগাঁও ও সাতগাঁও গ্রামবাসীর মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। সংঘর্ষ চলাকালে কয়েক রাউন্ড গুলির শব্দ শোনা গেছে বলে জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

গ্রাম সংলগ্ন সুনামপুর মৌজার অন্তর্গত ভটেরখাল নদীর ভোগ-দখল নিয়ে সাতগাঁও গ্রামের মৃত তাজ উদ্দিনের পুত্র সাদ মিয়া ও খাসগাঁও গ্রামের মৃত মাফিজ আলীর পুত্র ইউপি সদস্য করম আলী পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। এ নিয়ে গত ক’দিন ধরে উভয় গ্রামের লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। গত রবিবার জেলা প্রশাসক খাসগাঁও এলাকায় লিজ বহির্ভূত নদীর কিছু অংশ ভোগ-দখলের বিষয়টি স্থানীয়ভাবে নিস্পত্তির নির্দেশ দেন।

বিষয়টি নিস্পত্তির লক্ষ্যে মঙ্গলবার কুমারকান্দি মাদ্রাসায় গণ্যমান্যদের উপস্থিতিতে সালিশ-বৈঠক চলাকালে উভয় গ্রামের লোকজন বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে উভয় গ্রামের লোকজন দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। প্রায় ঘণ্টাব্যাপী দফায়-দফায় সংঘর্ষে নারীসহ উভয় গ্রামের অর্ধ শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়। গুরুতর আহত সামছুল হক, আতাবুল, বারিক মিয়া, আশ্রব আলী, রইছ আলী, আশক আলী, পারভেজ, আনোয়ার হোসেন, আব্দুল আওয়াল, সায়েস্তা মিয়া, আবুল মিয়া ও সুজন মিয়াকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এছাড়াও অন্য আহতদের স্থানীয় কৈতক হাসপাতালে ভর্তি ও চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। বর্তমানে এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। জাউয়াবাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পুলিশ পরিদর্শক নির্মল চন্দ্র দেব জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পরিস্থিতি এখন শান্ত রয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/৬নভেম্বর/প্রতিনিধি/এলএ)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত