ওপেনিংয়ে এক পজিশনের জন্য তিনজনের লড়াই

ক্রীড়া ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ০৮ নভেম্বর ২০১৮, ১৯:৫৩

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলে ওপেনিংয়ে তামিম ইকবালের জায়গা স্থায়ী। তার বিকল্প এখনো তৈরি হয়নি। তামিম ইকবাল এক প্রান্ত আগলে রাখলেও অপর প্রান্তের জন্য বছরের পর বছরেও স্থায়ী কোনো ব্যাটসম্যান খুঁজে পায়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। ওপেনিংয়ে তামিমের সঙ্গে অনেককে দিয়ে চেষ্টা করানো হয়েছে। কিন্তু কেউই তামিমের মতো জায়গা স্থায়ী করতে পারেননি।

ইমরুল কায়েস, এনামুল হক বিজয়, সৌম্য সরকার, লিটন দাসদের প্রত্যেককে দিয়েই ওপেনিংয়ে চেষ্টা করানো হয়েছে। কিন্তু তাদের প্রত্যেকেই হঠাৎ জ্বলে ওঠেন, আবার নিভে যান। তবে, সম্প্রতি তামিম ইকবাল ইনজুরির কারণে মাঠের বাইরে চলে যাওয়ায় ইমরুল, সৌম্য, লিটনের প্রত্যেকেই কম বেশি নিজেদের প্রমাণ করার সুযোগ পেয়েছেন।  প্রত্যেকেই ভালো করেছেন।

জিম্বাবুয়ে সিরিজ শেষ হলে কয়েক দিন পরই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ খেলতে নামবে টাইগাররা। এই সিরিজে ফিরতে পারেন ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবাল। আর তামিম ইকবাল ফিরলেই ইমরুল কায়েস, লিটন দাস ও সৌম্য সরকারের মধ্যে অন্যরকমের লড়াই শুরু হয়ে যাবে। তাদের তিনজনের মধ্যে ওপেনিংয়ে কে হবেন তামিম ইকবালের সঙ্গী?

সম্প্রতি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে দুইটি সেঞ্চুরি ও একটি হাফ সেঞ্চুরিতে মোট ৩৪৯ রান করেন ইমরুল কায়েস। তিন ম্যাচে তার স্কোর ছিল যথাক্রমে ১৪৪, ৯০ ও ১১৫। অন্যদিকে, লিটন দাসও ফর্মে রয়েছেন। গত ২৮ সেপ্টেম্বর এশিয়া কাপের ফাইনাল ম্যাচে সেঞ্চুরি করার পর দেশে ফিরে প্রথম শ্রেণির ম্যাচে ডাবল সেঞ্চুরি করেন লিটন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে দারুণ একটি ইনিংস খেলেন তিনি।

অন্যদিকে, সৌম্য সরকার সম্প্রতি ঘরোয়া ও আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ব্যাট ও বল হাতে দারুণ ছন্দে রয়েছেন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তাকে প্রথমে দলে ডাকেননি নির্বাচকরা। কিন্তু প্রস্তুতি ম্যাচে সেঞ্চুরি করে সৌম্য সরকার জানান দেন যে, তিনিও সুযোগ পেলে ভালা কিছু করতে প্রস্তুত। নির্বাচকরা বুঝতে পেরেছিলেন যে, সৌম্যকে দলে সুযোগ দেয়া দরকার। এজন্য সিরিজের শেষ ম্যাচে সুযোগ দেয়া হয় সৌম্যকে। সুযোগ পেয়েই সেঞ্চুরি করেন সৌম্য সরকার। তিনি ইঙ্গিত দেন যে, ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সুযোগ পেলে ভালো করার জন্য তিনি তৈরি আছেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ইমরুল কায়েসের অভিষেক হয় ২০০৮ সালের ১৪ অক্টোবর। দলে সুযোগ পাওয়ার পর থেকেই তিনি আসা যাওয়ার মধ্যে রয়েছেন। নিয়মিত হতে পারেননি। তবে তিনি যে লড়াকু সেটি বারবার প্রমাণ করেছেন। ইমরুল কায়েসের টেকনিক নিয়ে অনেকবার প্রশ্ন উঠেছে। এমন একটা সময় গিয়েছে যখন তাকে শুধু টেস্ট ক্রিকেটে ডাকা হতো। তবে সময়ের সাথে সাথে ইমরুল পরিণত হয়ে উঠছেন। দলের কঠিন সময়ে হাল ধরছেন। শুধু সাদা পোশাক নয়, রঙিন পোশাকের ক্রিকেটেও তিনি নিজেকে দুর্দান্তভাবে মেলে ধরছেন।

ইমরুল কায়েস ওয়ানডে ক্রিকেটে এখন পর্যন্ত ৭৬টি ম্যাচ খেলে ২৪৩০ রান করেছেন। একদিনের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তার ১৬টি হাফ সেঞ্চুরি ও চারটি সেঞ্চুরি রয়েছে। টেস্টে ৩৫টি ম্যাচ খেলে করেছেন ১৭২৭ রান। লংগার ভার্সনের ক্রিকেটে তার চারটি হাফ সেঞ্চুরি ও তিনটি সেঞ্চুরি রয়েছে। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ১৪ ম্যাচ খেলে ১১৯ রান করেছেন তিনি। এই ফরম্যাটে তার কোনো হাফ সেঞ্চুরি বা সেঞ্চুরি নেই।

২০১৪ সালের ১ ডিসেম্বর ওয়ানডে ফরম্যাটের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয় সৌম্য সরকারের। ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে পাকিস্তান, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকার মতো শক্তিশালী দলের বিপক্ষে কয়েকটি দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন তিনি। কিন্তু এই ধারাবাহিকতা তিনি ধরে রাখতে পারেননি। ভালো না করলেও নির্বাচকরা তাকে একের পর এক সুযোগ দিয়েছেন। তারপরও ব্যর্থ হওয়ায় এক পর্যায়ে দল থেকে বাদ পড়েন সৌম্য সরকার।

সৌম্য সরকার ওয়ানডেতে এখন পর্যন্ত ৩৫ ম্যাচ খেলে ১১১৭ রান করেছেন। এই ফরম্যাটে তার দুইটি সেঞ্চুরি ও ছয়টি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে। টেস্টে ১০ ম্যাচ খেলে তিনি করেছেন ৫৫৮ রান। সাদা পোশাকের ক্রিকেটে তার চারটি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে ৩৮ ম্যাচ খেলে তিনি করেছেন ৬৭২ রান। টি-টোয়েন্টি তার একটি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে। কোনো সেঞ্চুরি নেই।

লিটন দাসের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার শুরু হয় ২০১৫ সালে। বর্তমান সময়ে লিটন দাসকে অন্যতম সেরা প্রতিভাবান ক্রিকেটার মনে করা হয়। তার শট খেলার টেকনিক চমৎকার। হার্ড হিটার ব্যাটসম্যান লিটন দাস শুরুর দিকে নিজেকে মেলে ধরতে না পারলেও সম্প্রতি কয়েকটি দারুণ ইনিংস উপহার দিয়েছেন।

ওয়ানডে ফরম্যাটে এখন পর্যন্ত ২১টি ম্যাচ খেলে ৪৩৩ রান করেছেন লিটন দাস। এই ফরম্যাটে তার একটি সেঞ্চুরি ও একটি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে। সাদা পোশাকের ক্রিকেটে ১১ ম্যাচ খেলে তিনি করেছেন ৪৮৯ রান। লংগার ভার্সনের ক্রিকেটে তার তিনটি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে লিটন দাস এখন পর্যন্ত ১৫ ম্যাচ খেলে ২৮২ রান করেছেন। এই ফরম্যাটে তার একটি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/৮ নভেম্বর/এসইউএল)

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত