আমরা সবাই জান দিয়ে খেলছি: মিরাজ

ক্রীড়া প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ১৯:০৪

সিরিজের প্রথম ম্যাচে হেরেছে বাংলাদেশ। তাই এই ম্যাচে বাংলাদেশের সামনে সিরিজ বাঁচানোর চ্যালেঞ্জ। সেই চ্যালেঞ্জ সামনে রেখে খেলতে নেমে ম্যাচের প্রথম চারদিন ভালোই কেটেছে টাইগারদের। ম্যাচের শেষ দিন এখন টাইগারদের সামনে জয় পাওয়ার চ্যালেঞ্জ। জিততে হলে বৃহস্পতিবার জিম্বাবুয়েকে অলআউট করতে হবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদদের। বুধবার বাংলাদেশের দেয়া ৪৪৩ রানের জয়ের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে দুই উইকেটে ৭৬ রান সংগ্রহ করে দিনের খেলা শেষ করে জিম্বাবুয়ে। এই ম্যাচে জয়ের জন্য দলের সবাই জান দিয়ে খেলছে বলে উল্লেখ করেছেন টাইগার অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজ। বুধবার সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি। 

চতুর্থ দিন ফলোঅনে জিম্বাবুয়েকে ব্যাট করতে না পাঠানোর কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে মিরাজ বলেন, ‘আমাদের দুই দিন সময় ছিল। ওরাও ২১৮ রানে পিছিয়ে ছিল। তাই আমাদের চিন্তা ছিল ওরা শেষ ইনিংসে ব্যাট করবে। কারণ শেষদিন উইকেটে অনেক কিছু হবে, উইকেট ভেঙে যাবে। তাড়াতাড়ি আউট হওয়ার সম্ভাবনাটা বেশি। আমরা এই ঝুঁকিটা নিতে চাইনি। আমরা ঝুঁকিমুক্ত থাকতে চেয়েছি। কারণ আমরা অনেকটাই ব্যাকফুটে। সিলেট টেস্টে হারায় এই টেস্টে আমরা সবাই জান দিয়ে খেলছি।’

টেস্ট ক্রিকেটে দীর্ঘ আট বছর পর সেঞ্চুরি করলেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। সেঞ্চুরি করার পরই মাটিতে সেজদাহ করেন তিনি। কিন্তু মাহমুদউল্লাহর সেজদার সঙ্গে আরেকটি নতুনত্ব দেখেছে ক্রিকেটপ্রেমীরা। সেঞ্চুরি করা অধিনায়কের সঙ্গে সেজদাহ করেছেন ২৭ রান করে অপরাজিত থাকা মেহেদী হাসান মিরাজও। কিন্তু কেন?

এ বিষয়ে মেহেদী হাসান মিরাজ বলেন, ‘আপনারা যদি দেখেন শেষ অনেকদিন ধরে আমাদের বোলাররা রানে ছিল না। সেক্ষেত্রে এই ম্যাচে কিন্তু আমাদের অনেক প্রাপ্তি ছিল। মুশফিক ভাই ডাবল সেঞ্চুরি করেছেন, মুমিনুল ভাই ১৫০ করেছেন, রিয়াদ ভাই সেঞ্চুরি করেছেন, মিথুন ভাই হাফ সেঞ্চুরি করেছেন এবং আমিও হাফ সেঞ্চুরি করেছি। এসব ভেবে আমার খুব ভালো লেগেছে যে, ব্যাটসম্যানরা রানে ফিরেছে, সবাই অবদান রাখছে। এটা কিন্তু একটা টিমের জন্য অনেক কিছু। এই খুশিতেই আসলে সেজদাহ দেয়া। সবার খুশিটা নিজের মধ্যে কাজ করছিল। নিজের অনুভূতিটা আসলে ধরে রাখতে পারিনি। তাই রিয়াদ ভাইয়ের সঙ্গে আমিও সেজদাহ দিয়েছি।’

এই টেস্টে প্রথম ইনিংসে ডাবল সেঞ্চুরি করেন মুশফিকুর রহিম। কাকতালীয়ভাবে তখনও মুশফিকের সঙ্গে উইকেটে ছিলেন মিরাজ। আজ মাহমুদউল্লাহ সেঞ্চুরি করলেন। সেখানেও সঙ্গী মিরাজ। সেঞ্চুরিয়ানদের সঙ্গে জুটিটা মিরাজ কতটা উপভোগ করেছেন।

জবাবে মিরাজ বলেন, ‘আমি একজনের ডাবল সেঞ্চুরির ও আরেকজনের সেঞ্চুরির সঙ্গী ছিলাম। আসলে দিন শেষে সবার আগে দল। আমরা সবাই দলের জন্যই খেলি। এই জন্য আমার মন খুব খুশি। আমার সেঞ্চুরি হয়েছে কি হয়নি সেটা নিয়ে চিন্তা করছি না। ভবিষ্যতে সুযোগ থাকলে হবে হয়তো। তবে তাদের সঙ্গটা উপভোগ করেছি।’

মিরপুর টেস্টের আর এক দিন বাকি। শেষ দিনের ফলাফলটা কতটা বাংলাদেশের পক্ষে আসতে পারে? এই প্রসঙ্গে মিরাজ বলেন, ‘এখন পর্যন্ত আমাদের দিকেই আছে। তাদের ৪৪৩ রানের টার্গেট দিয়েছি আমরা। তাছাড়া ইতিমধ্যে তারা দুইটি উইকেট হারিয়ে ফেলেছে। সবকিছু মিলিয়ে ম্যাচটা এখনো আমাদের দিকেই আছে। আর আমাদের বোলাররা যদি ঠিক জায়গায় বল করতে পারে তাহলে জয়টা আমাদেরই হবে।’

শেষ দিন পিচ কেমন হতে পারে এ প্রসঙ্গ উঠলে মিরাজ বলেন, ‘কাল সবার আগে আমাদের ভালো জায়গায় বোলিংটা করতে হবে। কারণ উইকেট দেখেন, চারদিন গেছে তারপর অতটা স্লো হয়নি। দুই একটা বল হচ্ছে। এটা হবেই স্বাভাবিক। আমাদের মানসিকতা ওইভাবে থাকতে হবে। বোলারদের অনেক কষ্ট করতে হবে। কারণ কাল উইকেট আরো পাল্টাবে। তাই আমাদের টার্গেট থাকবে স্ট্যাম্প টু স্ট্যাম্প বল করা। তাছাড়া কাল একটা নতুন দিন। সেভাবেই চ্যালেঞ্জটা নিতে হবে। আমরা চেস্টা করব সবটা দিয়ে ম্যাচ জিততে।’

(ঢাকাটাইমস/১৪ নভেম্বর/এইচএ/এসইউএল)

 

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

খেলাধুলা বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত