বানচাল করতেই ভোট পেছানোর দাবি: কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১৭:০৮ | প্রকাশিত : ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১৪:২৬

বিএনপিসহ সরকারবিরোধী দলগুলোর জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নির্বাচন পেছানোর যে দাবি করেছে তাকে অযৌক্তিক হিসেবে দেখছে সরকারি দল আওয়ামী লীগ। নির্বাচন বানচাল করতেই এই দাবি করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তবে এবার আর নির্বাচন বানচালের কোনো সুযোগ নেই বলে মনে করেন তিনি।  

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এই মন্তব্য করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ভোট পেছানোর দাবি একেবারেই অযৌক্তিক। তারা নির্বাচন বানচাল করতেই এই দাবি করেছেন। আমাদের মতো বড় দল না চাইলে কীভাবে নির্বাচন পেছাবে? আরও দল আছে তারাতে চায়নি।’ 

বুধবার নয়াপল্টনে পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা উল্লেখ করে কাদের বলেন, ‘আন্দোলনের নামে সহিংসতার আশ্রয় নিয়েছে বিএনপি। তারা পরিকল্পিতভাবে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়েছে। ভিডিও ফুটেজ আপনারা (সাংবাদিক) দেখেছেন। তারা পুলিশের গাড়িতে উঠে শেখ হাসিনার পতন চেয়েছে। এটা কেন? তারা আসলে নির্বাচনে যেতে চান না, তারা নির্বাচন বানচাল করতে চান।’ 

‘এ ঘটনা সাধারণ মানুষের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি করেছে। তবে আপনাদের ভাবতে হবে এর জন্য কে দায়ী?’ যোগ করেন কাদের। 

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমি ভাবতে পারিনি মির্জা ফখরুল এতটা মিথ্যা কথা বলবেন। তিনি গতকাল যে মন্তব্য করেছেন এটা কে বিশ্বাস করবে? ছাত্রলীগ নাকি হামলা করেছে-এটা কেউ বিশ্বাস করবে? আমি ভাবতেও পারিনি মির্জা ফখরুলের মুখে এমন মিথ্যা কথা শুনতে হবে।’

আপনারা এ বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা নেবেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, ‘আমরাতো নির্দেশ দিতে পারি না। এখন এটা নির্বাচন কমিশন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণায়কে বলতে পারে তদন্তের জন্য। আমরা দেখছি নির্বাচন কমিশন কী ব্যবস্থা নিতে পারে।’

কাদের বলেন, ‘নির্বাচনী সুবাতাস কারা বিনষ্ট করছে? এখানে সরকারের কোনো দায় দায়িত্ব নেই। ঘটনা পূর্বপরিকল্পিত। নির্বাচন নিয়ে ব্লু প্রিন্টের টেস্ট কেস আমরা কাল দেখেছি। নির্বাচন বিনষ্টের যে অশুভ তৎপরতা তা গতকাল প্রমাণ করেছে বিএনপি। তারা নির্বাচন চাইলে তাদের এই অশুভ তৎপরতা বন্ধ করতে হবে।’

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘এবার কোনো অশুভ শক্তি নির্বাচন বানচাল করতে পারবে না। জনগণ সতর্ক পাহারায় রয়েছে। এ ধরনের কোনো অপতৎপরতা চালালে জনগণ তা প্রতিহত করবে।’

ঐক্যফ্রন্টের পিএম ফেইজ কে?’

ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আমি ঐক্যফ্রন্টকে প্রশ্ন করতে চাই, ‘হু ইজ দেয়ার পিএম ফেইজ’ এটা আমি জানতে চাই। এটা দেশবাসীও জানতে চায়। তাদের প্রধানমন্ত্রী কে হবেন? ড. কামাল নাকি তারেক রহমান?’

মন্ত্রীদের পদত্যাগ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘নির্বাচনকালীন সরকার বলে কোনো কিছু সংবিধানে নেই। পৃথিবীর সব দেশে যখন নির্বাচন হয় তখন বর্তমান সরকার দায়িত্বে থাকে। আর নির্বাচন কমিশন বাকি দায়িত্ব পালন করে।’ 

‘টেকনোক্র্যাট মন্ত্রী থাকবেন না। প্রধানমন্ত্রী এটা গ্রহণ করলে রাষ্ট্রপতির কাছে যাবে। তারপর ফাইনালি তাদের পদত্যাগ হয়ে যাবে। তবে বর্তমান মন্ত্রিসভা থেকে মন্ত্রী আর কমার সম্ভাবনা নেই।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আমাদের কাছে মাঠ পর্যায়ের সার্ভে রিপোর্ট রয়েছে সব দলের বিষয়ে। আমাদের কাছে বিস্তারিত সার্ভে রিপোর্ট রয়েছে। এটা প্রধানমন্ত্রীর কাছে রয়েছে। আমরা এ সার্ভে রিপোর্ট থেকে নির্বাচনের বিষয়ে বিজয়ের বিষয়ে আশাবাদী।’ 

খালেদা জিয়ার মুক্তি বিষয়ে সরকার কোনো উদ্যোগ নেবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, ‘বেগম জিয়ার বিষয়ে আমি সবিনয়ে বলবো এটা আদালতের বিষয়।’

(ঢাকাটাইমস/১৫নভেম্বর/এমএম/জেবি)

 

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত