কামারগ্রাম কাঞ্চন একাডেমির নতুন ভবন নির্মাণ শুরু

মো. মুজাহিদুল ইসলাম নাঈম, ঢাকা টাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১৬:৪৩

ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার ঐতিহাসিক বিদ্যাপীঠ কামারগ্রাম কাঞ্চন একাডেমির নতুন তিনতলা ভবন নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে। ৮২ লাখ টাকা ব্যয়ে ভবনটি নির্মাণ করছে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর।

বৃহস্পতিবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ভবনটির বেস ঢালাইয়ের কাজ চলছে। ওই কাজে নিয়োজিত সাইট ইঞ্জিনিয়ার হামিদুল ইসলাম বলেন, আমরা অতি দ্রুত সুষ্ঠুভাবে ভবন নির্মাণের কাজ শেষ করবো।

কামারগ্রাম কাঞ্চন একাডেমির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি, বাংলাদেশ কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি ও ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য আরিফুর রহমান দোলনের প্রচেষ্টায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি ভবন নির্মাণে ৮২ লাখ টাকা বরাদ্দ পেয়েছে বলে জানান প্রধান শিক্ষক মো. জাকির হোসেন।

একাডেমির ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আরিফুর রহমান দোলন বলেন, প্রতিষ্ঠানটিতে শিক্ষার্থীর তুলনায় পর্যাপ্ত ভবন না থাকায় আমি দীর্ঘদিন ধরে সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরে ভবন নির্মাণে আর্থিক বরাদ্দের জন্য চেষ্টা-তদবির করে আসছিলাম। অবশেষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাদের সেই চাওয়া পূরণ করেছেন।

কামারগ্রাম কাঞ্চন একাডেমির নতুন ভবন নির্মাণে বরাদ্দ দেয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেন আরিফুর রহমান দোলন। ধন্যবাদ জানান স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় (এলজিআরডি) মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন এবং শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকেও।

১৯৩৭ সালে মরহুম কাঞ্চন মুন্সী বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা করেন। আলফাডাঙ্গা অঞ্চলে এই প্রতিষ্ঠানটির মাধ্যমে সর্বপ্রথম শিক্ষার আলো ছড়িয়ে পড়ে। শুরু থেকেই কামারগ্রাম কাঞ্চন একাডেমির শিক্ষার্থীদের সফলতায় প্রতিষ্ঠানটির সুনাম গোটা ফরিদপুর অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। এই প্রতিষ্ঠানে যাদের শিক্ষায় হাতেখড়ি হয়েছিল, তাদের অনেকেই পরবর্তীতে সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সচিব, পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি, এসপি, রাজনীতিবিদ, চিকিৎসক এবং প্রকৌশলী হয়েছেন। যারা স্ব স্ব কর্মক্ষেত্রে কামারগ্রাম কাঞ্চন একাডেমির নাম উজ্জ্বল করেছেন।

আলফাডাঙ্গার কামারগ্রামে ৭০ কোটি টাকা ব্যয়ে টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টারেরও নির্মাণ কাজ চলছে। এরই মধ্যে সেন্টারটির তিনটি বহুতল ভবন নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে। এলজিআরডিমন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন প্রবাসীকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে থাকাকালে প্রতিষ্ঠানটির অনুমোদন দেন। এর পেছনেও কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি ও ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য আরিফুর রহমান দোলনের প্রচেষ্টা রয়েছে।

(ঢাকাটাইমস/১৫নভেম্বর/প্রতিনিধি/এআর)

সংবাদটি শেয়ার করুন

বাংলাদেশ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত