অগ্নিসংযোগকারীরা ছাত্রলীগ নেতা: রিজভী

নিজস্ব প্রতিবেদক
 | প্রকাশিত : ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১৮:৪৬

নয়াপল্টনের সংঘর্ষকালে পুলিশের গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের ঘটনায় আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগকে দায়ী করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বৃহস্পতিবার দলীয় কার্যালয়ে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে দেয়া বক্তব্যে এই কথা বলেন বিএনপির মুখপাত্র। তার দাবি, গাড়িতে আগুন জ্বালানোর যে ছবি এসেছে তিনি গুলশান থানা ছাত্রলীগের নেতা। নাম তার অপু।

আগের দিন মনোনয়ন ফরম বিক্রির তৃতীয় দিনে নয়াপল্টনে বিএনপি নেতা-কর্মী এবং পুলিশের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। এ সময় কয়েকটি গাড়ি ভাংচুর এবং পুলিশের দুটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়। ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগকারীদের মধ্যে কয়েকজন ছিলেন হেলমেট পরা।

রাতেই গাড়িতে আগুন দেয়ার ছবিটি প্রকাশ করে তার পরিচয় দেয়ার আহ্বান করে পুলিশ। তার পরদিন বাহিনীটি জানায়, এই যুবক ছাত্রদলের পল্টন এলাকার আহ্বায়ক কমিটির সদস্য শাহজালাল খন্দকার কবীর।

পুলিশ আরও জানায়, ঘটনার সময় এবং পরে প্রায় ৬৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং এরা সবাই বিএনপির রাজনীতির সাথে জড়িত।

এই ঘটনায় হেলমেট পরা কয়েকজন যুবককেও দেখা যায় যারা গাড়ি ভাঙচুর করছিল। রিজভী বলেন, ‘যারা আগুন দিয়েছে তারা পুলিশের প্রটেকশনে এই নাশকতার কাজ করেছে, এরা ছাত্রলীগ, যুবলীগের মহানগরের নেতা, যার সুস্পষ্ট প্রমাণ গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।’

বুধবারের সংঘর্ষের সময় প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায়, বিএনপির নেতা-কর্মীরা যখন পুলিশকে আক্রমণ শুরু করে তখন বাহিনীটি তা প্রতিহত করার চেষ্টা না করে দৌড়ে চালিয়ে যায়। এমনকি যখন গাড়ি ভাঙচুর ও আগুন দেয়া হচ্ছিল তখনও তারা সেখানে যায়নি।

রিজভী বলেন, ‘পুলিশের গাড়ি, সেখান থেকে পুলিশ সরে গেল কেন? এটা তো পুলিশেরই কাজ। পুলিশের গাড়ির ওপর এই হেলমেটধারী কে? আপনাদের মনে আছে এই হেলমেটধারী কী তা-ব করেছিল?’

বিএনপি নেতার দাবি, আসন্ন নির্বাচনকে ‘একতরফা’ ও ‘বিরোধীদলশূন্য’ করতেই পরিকল্পিতভাবে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে।

রিজভীর দাবি, বুধবারের ঘটনাটি শুরু হয়েছিল পুলিশ বিএনপির নেতা-কর্মীদের ওপর গাড়ি তুলে দেওয়ায়। বলেন, ‘প্রথমেই পুলিশ দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মিছিলে গাড়ি উঠিয়ে দিয়ে ঘটনার সূত্রপাত করে। এই গাড়িচাপায় অন্তত ২০ জনের অধিক নেতা-কর্মী আহত হয়েছে। পুলিশ কীভাবে জনগণের ওপর গাড়ি উঠিয়ে দিল, সেটি নির্বাচন কমিশনের কাছে জানতে চাই।’

‘প্রধানমন্ত্রী হবেন খালেদা জিয়া’
ঐক্যফ্রন্টের প্রধানমন্ত্রী প্রার্থী কে- ওবায়দুল কাদেরের এই প্রশ্নেরও জবাব দেন রিজভী। বলেন, ‘গণতন্ত্রের মা বেগম খালেদা জিয়াই এ দেশের প্রধানমন্ত্রী, জনগণের প্রধানমন্ত্রীর হবেন। এটা জনগণ স্বীকৃতি দিয়ে দিয়েছে।’

ঢাকাটাইমস/১৫ নভেম্বর/আরকে/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত