শ্রীলঙ্কার পার্লামেন্টে মারামারি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১৯:২২

ক্রমেই বাড়ছে শ্রীলঙ্কার রাজনৈতিক সংকট। প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে মাহিন্দা রাজাপাক্ষেকে সরিয়ে দেওয়ার প্রতিবাদে এ বার সংসদের মধ্যেই খণ্ডযুদ্ধ বাধল আইনপ্রণেতাদের মধ্যে।

ক্ষুব্ধ সাংসদদের দাবি, মাহিন্দাকে হ্যাঁ-না ভোটের মাধ্যমে সরিয়ে দেওয়ার কোনও অধিকার নেই স্পিকারের। রাজাপাক্ষে সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব পাস হওয়ার পরদিন বৃহস্পতিবার এমন লজ্জাজনক ঘটনার সাক্ষী থাকল দ্বীপরাষ্ট্র।

স্পিকার কারু জয়সূর্য বলেছিলেন, যে রাষ্ট্রে সরকারই নেই, সেখানে প্রধানমন্ত্রীও থাকতে পারে না। এই মত খারিজ করে দিয়ে রাজাপাক্ষে বলেন, 'অবশ্যই ভোট হওয়া উচিত। এমন গুরুত্বপূর্ণ কোনও প্রস্তাব হ্যাঁ-না ভোটে পাস করানো উচিত না।'

স্পিকারের প্রধানমন্ত্রী বা ক্যাবিনেটের কোনও সদস্যকে নিয়োগ করা বা বরখাস্ত করার কোনও অধিকার নেই বলেও সরব হন রাজাপাক্ষে।

তার পক্ষে ভোট চেয়ে তার সমর্থক সাংসদরা কক্ষের মাঝখানে চলে যান। কয়েকজন তেড়ে যান স্পিকারের দিকে। বিপক্ষের সাংসদরাও ছুটে গিয়ে হাতাহাতি শুরু করেন। প্রায় ১২ জন সাংসদ একে-অপরের সঙ্গে মারামারি করেন। যারা মেঝেতে পড়ে গিয়েছিলেন, তাদের লাথি মারতেও দেখা যায় বিপক্ষের সাংসদদের। রাজাপাক্ষের সমর্থক কয়েকজন সাংসদ অধ্যক্ষের দিকে পানির বোতল, বই, ক্যান ছুড়ে মারেন। প্রায় আধঘণ্টা এই 'দক্ষযজ্ঞ' চলার পর স্পিকার অধিবেশন মুলতুবি করে দেন।

গত ২৬ অক্টোবর প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা হঠাত্‍‌ই বিক্রমসিংহকে সরিয়ে প্রধানমন্ত্রী পদে রাজাপাক্ষেকে বসিয়ে দেওয়ার পর থেকেই শ্রীলঙ্কায় শুরু হয়েছে রাজনৈতিক সংকট।

(ঢাকাটাইমস/১৫নভেম্বর/এসআই)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত