ইসিকে না জানিয়ে বদলিতে নিষেধাজ্ঞা

নিজস্ব প্রতিবেদক
 | প্রকাশিত : ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ২০:৫৪

নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে পরামর্শ না করে নির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত কোনো কর্মকর্তাকে বদলি করতে নিষেধ করা হয়েছে। একই সঙ্গে সব মন্ত্রণালয়, বিভাগ এবং আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত সংস্থাগুলোকে নির্বাচনের কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত নির্বাচনের কাজে নিয়োজিত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীর ছুটি বা বদলি করা থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে।

গতকাল মন্ত্রিপরিষদ সচিব শফিউল আলম স্বাক্ষরিত এক আদেশে এই নির্দেশনা দেয়া হয়। এতে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন নিশ্চিত করতে নির্বাচন কমিশনকে সহযোগিতার নির্দেশও দেয়া হয়।

নির্বাচন কমিশনের চিঠির প্রেক্ষিতে গতকাল মন্ত্রিপরিষদ সচিব শফিউল আলম এই নির্দেশনা দিয়েছেন। এতে বলা হয়, নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও নিরপেক্ষ করা সবার কর্তব্য। নির্বাচন কমিশনের অনুরোধে সরকারের পক্ষ থেকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার প্রয়োজনীয় কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয় জানিয়েছে, নির্বাচন সংক্রান্ত কার্যাদি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা ও সম্পাদনের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক প্রিজাইডিং অফিসার, সহকারী প্রিজাইডিং এবং পোলিং অফিসার নিয়োগ দেয়া হবে। এদের সিংহভাগ সরকারি, আধা-সরকারি দপ্তর, স্বায়ত্তশাসিত, আধা-স্বায়ত্তশাসিত সংস্থা ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী।

সরকারি কর্মীরা চাকরির অতিরিক্ত দায়িত্ব হিসেবে নির্বাচন কমিশনের অধীনে প্রেষণে চাকরিতে গণ্য হবেন বলেও নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়েছে। আর নির্বাচন কমিশনের নির্দেশ পালনে বাধ্য থাকবেন তারা। প্রেষণে থাকাকালে নির্বাচন সংক্রান্ত দায়িত্ব অগ্রাধিকার পাবে।
আরেক নির্দেশনায় বলা হয়েছে, নির্বাচনী কর্মকর্তাদের নির্বাচন সংক্রান্ত কোনো দায়িত্ব পালনে অনীহা, অসহযোগিতা, শৈথিল্য, ভুল তথ্য দিলে অসদাচরণের অভিযোগে অভিযুক্ত হবেন এবং তার বিরুদ্ধে আইনানুযায়ী শৃঙ্খলামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করা যাবে।

শিক্ষকদের প্রতিও একই নির্দেশনা জারি করতে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ করা হয়েছে।
সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সচিব, মহাপুলিশ পরিদর্শক; বিজিবি, কোস্ট গার্ড, আনসার ও ভিডিপি এবং র‌্যাবের মহাপরিচালক; সব বিভাগীয় কমিশনার; মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর এবং মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক; সব পুলিশ কমিশনার, উপ-মহাপুলিশ পরিদর্শক, জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা, সব পুলিশ সুপার, আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসার, জেলা নির্বাচন অফিসার, আনসার ও ভিডিপির জেলা কমান্ডেন্ট, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা এবং উপজেলা/থানা নির্বাচন কর্মকর্তাদের নির্দেশনার অনুলিপি দেয়া হয়েছে।

ঢাকাটাইমস/১৫ নভেম্বর/ডব্লিউবি

সংবাদটি শেয়ার করুন

জাতীয় বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত