'ইউ টার্ন নেওয়া রাজনীতিরই অংশ'

আন্তর্জাতিক ডেস্ক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ১৯:৫৩ | প্রকাশিত : ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ১৯:৪৯

রাজনীতিতে ‘ইউ টার্ন’ অর্থাৎ পাল্টি খাওয়াই দস্তুর। সময় মতো পাল্টি না খাওয়ার জন্যই হিটলার ও নেপোলিয়নকে যুদ্ধ হারতে হয়েছিল। এভাবেই নিজেকে নাৎসি নেতা হিটলারের থেকেও চৌকস বলে বিতর্কে জড়ালেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এমনটাই জানাচ্ছে পাকিস্তান সংবাদ মাধ্যম জিও নিউজ।

গত বেশ কিছু দিন ধরেই নীতির প্রশ্নে বিভিন্ন জায়গায় আপস করার জন্য ঘরে বাইরে সমালোচনার মুখে পড়ছিলেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। যেসব প্রতিশ্রুতি দিয়ে তিনি নির্বাচনে জিতেছিলেন, আর ক্ষমতায় আসার পর তিনি যা করছেন, তার মধ্যে মিলের চেয়ে অমিলই বেশি।

কখনও ধর্মীয় মৌলবাদীদের দাবি মেনে নেওয়া, কখনও সন্ত্রাসে মদত দেওয়া, কখনও ঋণের ভিক্ষা পাত্র নিয়ে সৌদি আরব বা আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের দরজার সামনে দাঁড়ানো, বাদ নেই কিছুই। অথচ নির্বাচনের আগে ঠিক উল্টো কথাই বলতেন ইমরান।

এই ইউ টার্ন বা পাল্টি খাওয়া নিয়েই তাকে শুক্রবার প্রশ্ন করেন সাংবাদিকেরা। সেখানেই বেফাঁস মন্তব্য করে বসেন ইমরান। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন। ‘পরিস্থিতি অনুযায়ী পাল্টি খেতেই হয়, এটাই রাজনীতি। যে পাল্টি খেতে পারে না, সে কোনও নেতাই নয়।’

অবশ্য এখানেই থেমে থাকেননি ইমরান খান। তার মন্তব্য, ‘সময়মতো ‘ইউ টার্ন বা পাল্টি না খাওয়ার জন্যই বিপুল পরাজয় আর ক্ষতির মুখোমুখি হয়েছিলেন হিটলার এবং নেপোলিয়ন। পাল্টি খেলে এই হারের মুখোমুখি তারা হতেন না।’

এই মন্তব্যের পরই দেশজোড়া সমালোচনা আর বিদ্রুপের মুখোমুখি হয়েছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। পাকিস্তানের একটি সংবাদপত্রের সম্পাদকীয়তে প্রাবন্ধিক নাদিম ফারুক লিখেছেন, ‘একদম ঠিক আছে। আমার মনে হচ্ছে এই বক্তব্য নিয়েও এবার ‘ইউ টার্ন’ নেবেন ইমরান খান। এটাই ওর স্বভাবসিদ্ধ ক্লাসিক স্টাইল।’

(ঢাকাটাইমস/১৮নভেম্বর/এসআই)

সংবাদটি শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত