ড. কামালের সঙ্গে ব্রিটিশ হাইকমিশনারের সাক্ষাৎ

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
 | প্রকাশিত : ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ২২:১৪

গণফোরাম সভাপতি ও ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ব্রিটিশ হাইকমিশনার অ্যালিসন ব্লেক। সোমবার সন্ধ্যায় কামাল হোসেনের বেইলি রোডের বাসায় তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ব্রিটিশ হাইকমিশনার।

সাক্ষাৎ শেষে ড. কামাল সাংবাদিকদের বলেন, ব্রিটিশ হাইকমিশনারের সঙ্গে সাক্ষাতে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনের বিষয়টি তুলে ধরা হয়েছে। বলেছি ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচনে ভোট ছাড়াই ১৫৪ জন নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচিত সরকার না থাকার কারণে দেশের অনেক ক্ষতি হয়েছে।

ড. কামাল বলেন, ‘সব সময় আমরা নিরপেক্ষ নির্বাচন আমরা চেয়েছি। এজন্য আমরা নিউট্রাল সরকার চেয়েছি। আমরা যে সাত দফা দিয়েছি তা নিরপেক্ষ একটি নির্বাচনের জন্য। তত্ত্বাবধায়ক সরকার তুলে দেয়া হলো একটি জাজমেন্ট দিয়ে, এরপর থেকেই সমস্যা শুরু হলো।’

গণফোরাম সভাপতি বলেন, তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়াও অনেকভাবে নির্বাচনকে নিরপেক্ষ করার যায়। বলেন ‘একটি প্রতিযোগিতামূলক ইলেকশনে যারা আম্পায়ারিং করবেন তাদের নিরপেক্ষ থাকতে হবে। এক পার্টি যখন ইলেকশন করে তারা লোক আম্পায়ারিং করবে তাহলে তো নিরপেক্ষ হবে না।’

‘সংলাপেও বিষয়গুলি নিয়ে আলোচনা হয়েছে, নিরপেক্ষ সরকার মানেই হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী কোনো ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারবে না। প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী যদি রেফারির ভূমিকা পালন করে, পুলিশ প্রশাসন যদি নিরপেক্ষ না থাকে তাহলে তো ফেয়ার ইলেকশন হয় না।'

এক প্রশ্নের জবাবে ঐক্যফ্রন্টের এই শীর্ষনেতা বলেন, ‘ব্রিটিশ হাইকমিশনারের সঙ্গে বৈঠকে দেশের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা হয়েছে। বিশেষত আগামী নির্বাচনকে আমরা কিভাবে দেখছি এবং কী ধরনের নির্বাচন হতে যাচ্ছে, ব্লেইক তা জানতে চেয়েছেন।’

‘আমরা আমাদের অবস্থান পরিষ্কার করেছি। বলেছি, অবাধ-নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চাওয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে সাত দফা দাবিও দিয়েছি আমরা।’

বৈঠকে ব্রিটিশ হাইকমিশনার কোনো আশ্বাস দিয়েছেন কি না এমন প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল বলেন, ‘ওরা তো আশ্বাস দেয় না, ওরা তো ওইভাবে বলেও না। তারা জানতে চেয়েছে আমরা কিভাবে দেশের অবস্থা দেখছি। তার মধ্যে নির্বাচনের কথা অবশ্যই এসেছে। আমি বলেছি আমরা তো অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন সব সময় চেয়ে আসছি। তত্ত্বাবধায়ক ছাড়া অনেকভাবে নির্বাচন নিরপেক্ষ করা যায়। এই বিষয়গুলি তাদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে।’

এর আগে গত ১৮ অক্টোবর রাজধানীর একটি হোটেলে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ফ্রান্স, নেদারল্যান্ডস, ইইউভুক্ত দেশগুলোসহ ২০ থেকে ২৫টি দেশের কূটনীতিক ও তাদের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। সেদিন জোটের সাত দফা দাবি ও ১১ লক্ষ্য নিয়ে নিজেদের ভাবনার বিষয়টি কূটনীতিকদের সামনে তুলে ধরেন ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল।

ঢাকাটাইমস/১৯নভেম্বর/জিএম/এমআর

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত