ময়মনসিংহ-১১

আমান উল্লাহকে নিয়ে খবরে বিএনপিতে উল্লাস

আজহারুল হক, ময়মনসিংহ
 | প্রকাশিত : ২১ নভেম্বর ২০১৮, ১১:২০

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলা নিয়ে গঠিত সংসদীয় আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য এম আমান উল্লাহ মনোনয়ন পাচ্ছেন না বলে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকের খবরে এলাকায় দেখা দিয়েছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। এই তথ্য কেউ নিশ্চিত না করলেও তৃণমূল আওয়ামী লীগরে নেতাকর্মীদের মাঝে দেখা দিয়েছে বিভ্রান্তি। অন্যদিকে বিএনপি বলয়ে চলেছে আনন্দ উল্লাস।

১৯৯৬ সাল থেকে এই আসনে টানা জিতে আসছে আওয়ামী লীগ। আর সে জয় এসেছে আমানউল্লাহর হাত ধরেই। এবারও তিনি ভোটের মাঠে সক্রিয়। আর বিএনপি মনে করছে, এবার আসনটি তারা দখলে নিতে পারবে।

আমানউল্লাহ একজন প্রখ্যাত চিকিৎসক যিনি সমানভাবে সক্রিয় রাজনীতিতেও। আর দুটি পরিচয় ব্যবহার করে সাধারণ মানুষের কাছেও পৌঁছে যান সহজেই। প্রথমবার নির্বাচিত হয়ে দায়িত্ব পান স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীর।

 বিনয়ী হিসেবেও আমানউল্লাহর রয়েছে ব্যাপক পরিচিতি। দলীয় প্রভাব, সহিংসতা ও হানাহানিমুক্ত পরিবেশ বিদ্যমান থাকায় রাজনৈতিক অঙ্গনে ইতিমধ্যে এলাকাটি বেশ পরিচিতি লাভ করেছে।

সংসদ সদস্য নিজে ছাড়াও তার স্ত্রী সাঈদা আক্তার ও তাঁর ছেলে মোনাসির সাকিফ আমান উল্লাহও চিকিৎসক। তাদেরও রয়েছে ব্যাপক পরিচিতি। তৃণমূল নেতাকর্মীরা মনে করেন আমান উল্লাহর বলিষ্ঠ নেতৃত্বেই ভালুকা আওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ। ভালুকা উপজেলা পরিষদ, পৌরসভা এবং ১১টি ইউনিয়ন পরিষদের সবকটির চেয়ারম্যানও আওয়ামী লীগের।

এই অবস্থায় আমান উল্লাহকে পাল্টে দেয়ার যে খবর এসেছে, সেটি বিএনপির জন্য স্বস্তি নিয়ে এসেছে। দলটির স্থানীয় পর্যায়ের একাধিক নেতা বলেন, ‘১৯৯৬ সাল থেকেই আসনটি আমাদের হাত ছাড়া। আর তখন থেকেই পুনরুদ্ধারের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। গত চারবার তারা ব্যর্থ হলেও এবার আমরা সম্ভাবনা দেখছি। যদি ডা. আমান উল্লাহকে মনোনয়ন দেওয়া না হয়, তাহলে আমরা আশাবাদী।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত