তিনজনের হাতে ব্র্যাক-সমকাল সাহিত্য পুরস্কার

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০২ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:০৪ | প্রকাশিত : ০২ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৩:০৩

এ বছর ব্র্যাক ব্যাংক-সমকাল সাহিত্য পুরস্কার পেলেন তিনজন। ‘মুক্তবুদ্ধির চড়াই-উতরাই’ বইয়ের জন্য অধ্যাপক যতীন সরকার, ‘একাত্তর ও অন্যান্য গল্প’ বইয়ের জন্য অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম ও পিয়াস মজিদ পেয়েছেন ‘মনীষার মুখরেখা’ বইটির জন্য ।

৩০ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ২০১৭ সালে প্রকাশিত বইয়ের জন্য তাদের এ পুরস্কার দেওয়া হয়। যতীন সরকার পুরস্কার পেয়েছেন ‘প্রবন্ধ, আত্মজীবনী, ভ্রমণ ও অনুবাদ’ শ্রেণিতে। কবিতা ও কথাসাহিত্য শ্রেণিতে সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম এবং ‘হুমায়ূন আহমেদ তরুণ সাহিত্যিক পুরস্কার’ পেয়েছেন পিয়াস মজিদ।

এবার প্রথম দুটিতে বিজয়ীরা পুরস্কার হিসেবে পেয়েছেন দুই লাখ টাকাসহ ক্রেস্ট ও সম্মাননা। তরুণ লেখক হিসেবে এক লাখ টাকা, ক্রেস্ট ও সম্মাননা দেওয়া হয়েছে। এবার পুরস্কারের জন্য মোট জমা হয় ৪৬৭টি। সেখান থেকে সেরা তিনটি বই নির্বাচন করেন বিচারকমণ্ডলী ভাষা সংগ্রামী আহমদ রফিক, কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক, কবি হেলাল হাফিজ এবং কথাসাহিত্যিক আনোয়ারা সৈয়দ হক।

অনুষ্ঠানে অভিনন্দন জানিয়ে জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান বলেন, ‘কালের হিসেবে এ পুরস্কার খুব বেশি দিন না হলেও এটি একটি মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কার। যারা এ পুরস্কার পাচ্ছেন, তারাও সম্মানিত হচ্ছেন।’ তিনি বলেন, ‘যতীন সরকার মার্কসবাদী লেখার মধ্য দিয়ে বিশেষভাবে সমাদৃত হয়েছেন। সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম যত্নশীল বুদ্ধিদীপ্ত নানা কাজ করেন, যা অন্য লেখকদের ক্ষেত্রে অনুকরণীয়। পিয়াস মজিদ তার পূর্বগামী লেখকদের ক্ষেত্রে গবেষকের মধ্যে দৃষ্টিপাত করেছেন।’

অনুষ্ঠানে হাসান আজিজুল হক বলেন, ‘আজকে যারা পুরস্কৃত হয়েছেন, তারা সবাই আমার ঘনিষ্ঠজন। তাদের সবাইকে ধন্যবাদ। এর ফলে কোনো পক্ষপাতিত্ব হয়েছে কি না, আমার জানা নেই। নির্মোহভাবে বিচার করার চেষ্টা করেছি। ঘনিষ্ঠ কোনো সম্পর্কের কথা মাথায় রাখিনি।’ কবি হেলাল হাফিজ পাঠ করেন নিজের লেখা কবিতা।

পুরস্কার পাওয়ার প্রতিক্রিয়ায় যতীন সরকার বলেন, “আমার অনুভূতি জানানোর ভাষা নেই। শুধু বলতে চাই, আমি অভিভূত। আমি দীর্ঘদিন যাবত অসুস্থ। বসে থাকতে পারি না, কলম চালাতে পারি না। আপনাদের আর্শিবাদ নিয়ে কবিগুরুর মতো বলতে চাই- ‘দেহে আছে প্রাণ প্রাণপণে পৃথিবীর সরাব জঞ্জাল’।”
সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম কিছুটা রসিকতার ছলে বলেন, ‘বন্ধু হেলাল হাফিজ পক্ষপাত করে আমাকে এ পুরস্কারের জন্য নির্বাচিত করেছেন! কারণ, এ পুরস্কার পেতে পারি, এটা কখনও ভাবিনি। আমার চেয়ে অনেকে ভালো লেখেন। সে হিসেবে এ পুরস্কার পাওয়ায় আমি কৃতজ্ঞ।’

পিয়াস মজিদ বলেন, ‘হৃদয়ের ভেতরের গুঞ্জরিত অনুভূতিগুলো তুলে ধরার চেষ্টা করি। তা যে কোনো শিল্পমাধ্যমেই হতে পারে। আমি সব মাধ্যমকে একসঙ্গে উদযাপন করছি।’

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সমকালের ফিচার সম্পাদক মাহবুব আজীজ। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন সমকালের প্রকাশক এ কে আজাদ ও ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি এবং ব্র্যাক ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সেলিম আর এফ হোসেন।

ঢাকাটাইমস/২ডিসেম্বর/এসএস

সংবাদটি শেয়ার করুন

সাহিত্য বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত