বার্থডে স্পেশাল

‘ইতিহাস’ দিয়ে ইতিহাস গড়েছিলেন মারুফ

বিনোদন প্রতিবেদক, ঢাকা টাইমস
| আপডেট : ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ১১:২৫ | প্রকাশিত : ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮, ১১:০১

ঢাকাই চলচ্চিত্রের একজন ভিন্ন ধারার নায়ক কাজী মারুফ। অ্যাকশন হিরোদের মধ্যেও তিনি অন্যতম। খুব অল্প সময়েই বাংলাদেশি চলচ্চিত্রে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন তিনি। বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি নির্মাতা কাজী হায়াতের একমাত্র ছেলে এই কাজী মারুফ। আজ তার জন্মদিন। শুভ জন্মদিন অভিনেতা। ১৯৮৩ সালের ৪ ডিসেম্বর তার জন্ম হয়েছিল গোপালগঞ্জে। কিন্তু বাবার কাজের সুবাদে বেড়ে ওঠেন ঢাকায়।

ছোটবেলায় পড়াশোনায় দুর্দান্ত ছিলেন কাজী মারুফ। যার কারণে বাবা কাজী হায়াৎ তাকে ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে ভর্তি করান। তিনি রাজধানীর উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল থেকে ‘ও লেভেল’ এবং মাস্টার মাইন্ড স্কুল থেকে ‘এ লেভেল’ শেষ করেন। পরবর্তীতে লন্ডন স্কুল অব কমার্স থেকে ব্যবসায় শিক্ষায় স্নাতক ডিগ্রি লাভ করেন।

কাজী মারুফ চলচ্চিত্রে এসেছিলেন বাবা কাজী হায়াতের হাত ধরে। ২০০২ সালে মুক্তি পেয়েছিল তার অভিনীত প্রথম ছবি ‘ইতিহাস’। যেটি ২০০২ সালে মুক্তি পেয়েছিল। এই ছবির জন্য তিনি শুটিং শুরু করেছিলেন ২০০১ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি থেকে। একই দিনে তার বিশ্ববিদ্যালয় জীবনও শুরু হয়। ওই দিন সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওরিয়েন্টেশন শেষে বিকেল ৫টায় এফডিসিতে ‘ইতিহাস’ ছবির মহরতে অংশ নেন তিনি।

কাজী মারুফ তার প্রখ্যাত চলচ্চিত্রকার বাবা কাজী হায়াতের মতো নিজেকে তেমন মেলে ধরতে পারেননি। কিন্তু
১৬ বছরের অভিনয় জীবনের শুরুতেই যে কীর্তি তিনি গড়েছিলেন, সেটা বাংলা চলচ্চিত্রের অন্য কোনো নায়কেরই নেই। এই রেকর্ডটি শুধু তারই। অভিষেক ছবি ‘ইতিহাস’-এর জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেতা হিসেবে তিনি ‘জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার’ জিতেছিলেন। ‘ইতিহাস’ দিয়েই ইতিহাস রচনা করেছিলেন এই অ্যাকশন হিরো।

‘ইতিহাস’সহ বাবা কাজী হায়াতের পরিচালনায় কাজী মারুফ মোট ছয়টি ছবিতে অভিনয় করেছেন। বাকি পাঁচটি হচ্ছে- ‘অন্ধকার’, ‘ক্যাপ্টেন মারুফ’, ‘মানিক রতন দুই ভাই’, ‘ইভ টিজিং’ ও ‘সর্বনাশা ইয়াবা’। এছাড়া অন্য পরিচালকদের পরিচালনায় ‘রাস্তার ছেলে’, ‘বস্তির ছেলে কোটিপতি’, ‘দারোয়ানের ছেলে’, ‘রাজা সূর্য খাঁ’ ও ‘দেহরক্ষী’ ছবিগুলোতে তিনি অভিনয় করেছেন।

ঢাকা টাইমস/০৪ ডিসেম্বর/এএইচ

সংবাদটি শেয়ার করুন

বিনোদন বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত