আ.লীগ ছাড়াও নৌকায় লড়বেন যারা

নিজস্ব প্রতিবেদক, ঢাকাটাইমস
| আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৬:০৮ | প্রকাশিত : ০৭ ডিসেম্বর ২০১৮, ১৬:০৪
ওবায়দুল কাদেরের হাত থেকে মনোনয়নের চিঠি নিচ্ছেন বিকল্পধারার মান্নান

আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রতীক নৌকা ব্যবহার করবে জোটের শরিক দলের ১৬ জন নেতাও। নিজেদের দলীয় প্রতীক ব্যবহার না করে তারা জোটের প্রধান দলের প্রতীক ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

তবে মহাজোটে দ্বিতীয় বৃহত্তম শরিক জাতীয় পার্টি তার দলীয় প্রতীক লাঙ্গল নিয়েই লড়বে ৩০ ডিসেম্বরের ভোটে।

গতকাল আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে শরিক দলের নেতাদের হাতে মনোনয়নের চূড়ান্ত চিঠি তুলে দেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

জোটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নৌকা নিয়ে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির পাঁচ জন, জাসদের দুই অংশের চারজন, বিকল্পধারার তিন জন এবং তরীকত ফেডারেশন ও জাতীয় পার্টি দুই জন করে লড়বেন নৌকা নিয়ে।

এই দলগুলোর আরও বেশ কয়েকজন প্রার্থী তাদের নিজস্ব প্রতীক ব্যবহার করবে। কারণ, নির্বাচনী আইন অনুযায়ী পরপর দুই বার নিজের প্রতীকে ভোট না করলে নিবন্ধন বাতিল হতে পারে। এ কারণে দলগুলো জোটের শরিক হিসেবে কিছু আসনে যেমন নির্বাচন করে, তেমনি কিছু আসনে উন্মুক্ত প্রার্থীও দিয়ে থাকে।

ওয়ার্কাস পার্টি

রাশেদ খান মেনন (ঢাকা-৮), ফজলে হোসেন বাদশা (রাজশাহী-২), মোস্তফা লুৎফুল্লাহ (সাতক্ষীরা-১), টিপু সুলতান (বরিশাল-৩), ইয়াসিন আলী (ঠাকুরগাঁও-৩)।

এই পাঁচ জন বর্তমান সংসদেরও সদস্য। এদের মধ্যে প্রথম দুই জন নবম সংসদ নির্বাচনে এবং বাকি তিন জন ২০১৪ সালের দশম সংসদ নির্বাচনে জেতেন।

জাসদের দুই অংশ

নৌকা নিয়ে হাসানুল হক ইনু (কুষ্টিয়া-২), শিরীন আখতার (ফেনী-১), রেজাউল করিম তানসেন (বগুড়া-৪) লড়বেন ইনুর নেতৃত্বাধীন জাসদের প্রার্থী হিসেবে।

এদের তিন জনই বর্তমান সংসদ সদস্য। এদের মধ্যে ইনু ২০০৮ সালেও জিতেছিলেন। আর পরের দুই জন ২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচনে প্রথমবারের মতো সংসদ সদস্য হন।

শরীফ নুরুল আম্বিয়ার নেতৃত্বাধীন জাসদের একমাত্র প্রার্থী হিসেবে চট্টগ্রাম-৮ আসনে লড়বেন মঈনুদ্দিন খান বাদল। তিনি ২০০৮ সাল থেকেই ওই আসনের সংসদ সদস্য।

আম্বিয়ার নড়াইল-১ আসনে ভোটে দাঁড়ানোর সম্ভাবনা ছিল। তবে শেষ মুহূর্তে ক্ষমতাসীন দল তাকে বাদ দিয়ে বর্তমান সংসদ সদস্য কবিরুল হক মুক্তিকে বেছে নেয়।

জেপি

জাতীয় পার্টির (জেপি) আনোয়ার হোসেন মঞ্জু (পিরোজপুর-২) ও রুহুল আমিন (কুড়িগ্রাম-৪) লড়বেন নৌকা নিয়ে। এদের মধ্যে মঞ্জু গত দুটি নির্বাচনে জোটের শরিক হিসেবে জিতেছেন। আর রুহুল গত নির্বাচনে জেতেন।

তরীকত ফেডারেশন

সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী (চট্টগ্রাম-২) ও আনোয়ার খানেরও (লক্ষ্মীপুর-১) প্রতীক নৌকা। এদের মধ্যে মাইজভান্ডারী ২০০৮ সাল থেকেই সংসদ সদস্য। আর আনোয়ার খান এবারই প্রথম ভোটে দাঁড়াচ্ছেন।

বিকল্পধারা

মহাজোটে নতুন যোগ দেয়া দলটি তিনটি আসনে নৌকার মনোনয়ন নিশ্চিত করেছে। যারা লড়বেন, তারা হলেন: এমএ মান্নান (লক্ষ্মীপুর-৪), মাহী বি চৌধুরী (মুন্সীগঞ্জ-১) ও এফএম শাহীন (মৌলভীবাজার-২)।

মান্নান বলছেন, আরো কয়েকটি আসন পাবেন তারা। ৯ ডিসেম্বর প্রার্থিতা প্রত্যাহারের সময় শেষ হওয়ার আগেই তা চূড়ান্ত হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

রাজনীতি বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

বিশেষ প্রতিবেদন বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি বিনোদন খেলাধুলা
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত